ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

পূজায় থাকুন প্রাণবন্ত

ফ্যাশন

পূজায় থাকুন প্রাণবন্ত

আসমাউল হুসনা

প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর ২০২৩ | ১৮:০০ | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২৩ | ০৮:০০

আসছে বাঙালি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের দুর্গোৎসব। নিজের ত্বক ও চুলের প্রতি নজর দেওয়ার এখনই সময়।

উৎসবের এ দিনগুলোতে নিজেকে পরিপাটি করে উপস্থাপন করতে চাই বিশেষ কিছু যত্ন। এ ব্যাপারে জারা’স বিউটি লাউঞ্জের কর্ণধার রূপ বিশেষজ্ঞ ফারহানা রুমি বলেন, উৎসবকে কেন্দ্র করে সামলাতে হয় বাড়তি কিছু চাপ। ক্লান্তির ছাপ পড়ে যায় ত্বকে। তাই বেশ কিছুদিন হাতে রেখে ত্বক ও চুলের যত্ন নিলে নিজেকে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করা যাবে। তবে সবকিছু সামলিয়ে অনেকেই পার্লারে যাওয়ার মতো সময়-সুযোগ করে উঠতে পারেন না। সে ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম অনুসরণ করে বাড়িতেই করে নিতে পারেন রূপচর্চা।

ত্বকের যত্ন: চোখের নিচে কালো দাগ, ব্রণ, ছোপ ছোপ কালো দাগ, বলিরেখা ত্বকের সাধারণ কিছু সমস্যা। এগুলোর জন্য পূজার দিনগুলোতে সাজ নিয়ে পড়তে পারেন বিড়ম্বনায়। সেক্ষেত্রে ঘরোয়া কিছু যত্ন নিন। স্ক্রাব: ব্ল্যাক হেডস ও ত্বকের গভীর থেকে ময়লা দূর করতে স্ক্রাব করে নিন। প্রথমে ফেস ওয়াশ দিয়ে ভালো করে মুখ পরিষ্কার করে নিন। সামান্য একটু চাল পিষে নিন, একেবারে পাউডার করবেন না। চালের গুঁড়ার সঙ্গে পরিমাণমতো মধু মিশিয়ে নিন। এরপর একটি লেবু গোল করে কেটে নিন। লেবুতে এই পেস্টটি লাগিয়ে নিয়ে মুখে আস্তে আস্তে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে স্ক্রাব করুন। এভাবে তিন মিনিট করার পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। লেবু ব্যবহার করতে না চাইলে হাত দিয়েও করতে পারেন।

প্যাক : ব্রণের দাগ দূর করতে ফেস প্যাক অত্যন্ত কার্যকর। ২ চা-চামচ মধুর সঙ্গে ১ চা-চামচ দারচিনি গুঁড়া মিশিয়ে ৫ মিনিট রেখে দিন। এরপর ত্বক ভালোভাবে পরিষ্কার করে প্যাকটি লাগিয়ে নিন। ১৫ মিনিট অপেক্ষার পর কুসুম গরম পানিতে রুমাল ভিজিয়ে মুখ মুছে নিন। চোখের নিচে কালো দাগ দূর করতে : চোখ ঢেকে থাকবে এমন পরিমাপে হাফ ইঞ্চি পুরু করে আলু কেটে চোখের ওপর রাখুন। ১০ মিনিট পরপর আলু পরিবর্তন করুন এবং ঠান্ডা পানিতে চোখ ধুয়ে ফেলুন। এ ছাড়া গ্রিন টি ব্যাগ চোখের ফোলাভাব কমাতে সহায়তা করে। বলিরেখা কমাতে : মুখের বলিরেখা পড়া স্থানে আঙুল দিয়ে মধু ব্যবহার করতে পারেন প্রতিদিন। এ ছাড়া অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে ডিম মিশিয়ে আক্রান্ত স্থানে ব্যবহার করলে ধীরে ধীরে বলিরেখা কমে। প্রতিদিন বাইরে বের হওয়ার ৩০ মিনিট আগে সানস্ক্রিন লাগিয়ে নিন এবং নিয়মিত টোনার দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করুন। এরপর সিরাম ও ময়েশ্চারাইজার লাগান। নারীর সৌন্দর্যের অনেকাংশ নির্ভর করে চুলের সৌন্দর্যের ওপর। উৎসবের দিনে ঝরঝরে প্রাণবন্ত চুল সবার কাছেই প্রত্যাশিত।

এ সময় খুশকি বিড়ম্বনা এড়াতে নিয়মিত অ্যান্টি ডেনড্রাফ শ্যাম্পু দিয়ে মাথার ত্বক পরিষ্কার করুন এবং তেল দিন। চুল বেশি শুষ্ক হয়ে গেলে, সপ্তাহে তিন দিন লেবুর রস ও নারকেল তেল একসঙ্গে মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। এ তেলের মিশ্রণ গোসলের আগে ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখলেই যথেষ্ট। কোঁকড়া চুল প্রাকৃতিকভাবে সোজা করতে কন্ডিশনার ব্যবহারের পর চুল ঠান্ডা পানিতে বেশ কয়েকবার ধুয়ে নিন। ত্বক ও চুলের সঙ্গে সঙ্গে হাত ও পায়ের যত্ন নেওয়াটাও খুব জরুরি। মডেল: রিতু; ছবি: মঞ্জু আলম

আরও পড়ুন

×