বায়রাক্তার টিবি২ ড্রোনের মাধ্যমে হামলা চালিয়ে কৃষ্ণসাগরে রাশিয়ার দুটি টহল জাহাজ ধ্বংস করা হয়েছে বলে দাবি করেছে ইউক্রেন।

ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর প্রধান এ তথ্য জানান। খবর বিবিসির।

ইউক্রেনের চিফ অব জেনারেল স্টাফ ভ্যালেরি জালুঝনি বলেন, রাশিয়ার দুটি র্যা পটর-ক্লাস টহল জাহাজ আজ ভোরে জিমিনি (স্ন্যাক) আইল্যান্ডের কাছে ধ্বংস করা হয়েছে।

এদিকে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়। এতে দেখা যায়, টহল দেওয়ার সময় দুটি জাহাজ কৃষ্ণসাগরে ড্রোন হামলার শিকার হয়েছে।

যদিও মস্কো এ বিষয়ে এখনও কোনো মন্তব্য করেনি।

এর আগে মস্কো জানিয়েছিল, এ পর্যন্ত ইউক্রেনের ১৪৫টি এয়ারক্র্যাফ্ট, ১১২টি হেলিকপ্টার, ৬৭২টি ড্রোন, ২৮১টি অ্যান্টি-এয়ারক্র্যাফ্ট ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা, দুই হাজার ৭০৩টি ট্যাংক ও অন্যান্য সামরিক যান এবং ৩১২টি একাধিক ধরনের রকেট লঞ্চার ব্যবস্থা ধ্বংস করা হয়েছে। 

২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে আগ্রাসন শুরু করে রাশিয়া। এর পর দেশটির রাজধানী কিয়েভসব প্রায় জায়গায় হামলা চালায় রুশ সেনারা। কিন্তু কিছু দিন পরই যুদ্ধের লক্ষ্য পরিবর্তন করে রাশিয়া দোনবাস ও দক্ষিণাঞ্চলকে গুরুত্ব দেওয়ার কথা জানায় মস্কো। এর পরই কিয়েভের আশপাশ থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। এখন ইউক্রেনের পূর্ব ও দক্ষিণাঞ্চলে হামলা জোরদার করা হয়েছে।