গিরগিটি রং বদলায় এটা তো আমরা সবাই জানি; কিন্তু কখনও কি শুনেছেন পাহাড় রং বদলায়? হ্যাঁ, পাহাড় রং বদলায়। কল্পনা নয়, সত্যি।
বলছি, অস্ট্রেলিয়ার উত্তরাঞ্চলের প্রদেশ নর্দান টেরিটোরিতে অবস্থিত 'আয়ারস রক' পাহাড়ের কথা আঞ্চলিক ভাষায় যেটি 'উলুরু' নামে পরিচিত। ৭ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের এই পাহাড়টির প্রস্থ ২.৪ কিলোমিটার এবং উচ্চতা ৩৪৮ মিটার। পাহাড়টির অবস্থান সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৮৬৩ ফুট ওপরে। অনেকটা ডিমের মতো দেখতে পাহাড়টি পুরোপুরিই একটি শিলা বা প্রস্তর খণ্ড। আর পাঁচটা পাহাড়ের মতো সাধারণ গঠন হওয়া সত্ত্বেও এর ক্ষণে ক্ষণে রং বদলানোর ক্ষমতা পাহাড়টিকে করছে অসাধারণ।

সকালের সূর্যের আলোর আপাতন রশ্মি পাহাড়ের গায়ে পড়তেই এটি আগুনরঙা রূপ ধারণ করে। সূর্যের আলো পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে পাহাড়টি হলুদ থেকে লাল, লাল থেকে কমলা, কখনও বা বেগুনি, আবার কোনো কোনো সময় গুমট কালো রং ধারণ করে। সারাদিন চলতে থাকা রং বদলের খেলার জন্যই পাহাড়টি বিশ্বদরবারে 'জাদুর পাহাড়' নামে সমাদৃত। অদ্ভুত এই রং বদল রহস্যের কারণ সম্পর্কে সঠিক কোনো তথ্য পাওয়া না গেলেও অনেকে বলেন, ভৌগোলিক অবস্থানের কারণেই এমন কাণ্ড হয়। তারা ধারণা করেন পাহাড়ের নিচে ম্যাগনেটিক ফিল্ড রয়েছে; যার একেক কোণে একেক বার সূর্যের আলো পড়ায় রং পরিবর্তন হয়। সেখানকার অধিবাসীরা মনে করেন, আগে এখানে কোনো এক জাদুকর গোষ্ঠী বাস করত, যাঁদের জাদুবলে এমন ঘটনা ঘটছে।

অ্যাডভেঞ্চারপ্রেমী মানুষগুলোর জন্য এটি অত্যন্ত প্রিয় একটি জায়গা। সারা বছরই পর্যটক ভিড় করে থাকেন আলোর এই খেলা নিজ চোখে দেখতে। পর্যটকদের জন্য জায়গাটিকে আরও রোমাঞ্চকর করতে অস্ট্রেলিয়া সরকার পাহাড়টির আশপাশের ৪৮৭ বর্গমাইল জায়গাজুড়ে 'মাউন ওগলাস ন্যাশনাল' নামে একটি পার্ক গড়ে তুলেছে। পার্কটির অন্য আরেকটি নাম 'কাতা তুজা'। এখানে পর্যটকদের জন্য রয়েছে সাঁতারের সুব্যবস্থা। এ ছাড়াও পার্কে ঘুরতে ঘুরতে খুব সহজেই ল্যান্ডস্কেপের মাধ্যমে পাহাড়ের সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়। পার্কটিতে বেশ ক'টি রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে এবং মূল রাস্তাটি মিশেছে 'আয়ারস রক' পাহাড়ে। কিন্তু স্থানীয়রা একে পবিত্র পাহাড় মনে করায় পাহাড় পরিদর্শন খুব একটা পছন্দ করেন না।

১৯৭৫ সালে আয়ারস রক পাহাড় থেকে ১৫ কিলোমিটারের দূরত্বে একটি বিমানবন্দর স্থাপন করা হয়। পর্যটকদের থাকা-খাওয়ার জন্য নির্মাণ করা হয় 'ইউলারা' রিসোর্ট। সেই সঙ্গে গাড়ি ভাড়া করে ঘুরে দেখারও সুযোগ রয়েছে। কেউ চাইলে গ্রুপভিত্তিক বিভিন্ন প্যাকেজে কিনে নিতে পারেন ভ্রমণ টিকিট।