কোরবানির ঈদে সহজেই তৈরি করা যায় মাংসের সব মজাদার আইটেম। তেমনি কিছু রেসিপি দিয়েছেন আলিফ'স ডেলিকেট ডিসেস-এর স্বত্বাধিকারী আলিফ রিফাত
রসুন গরুর মাংস
উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, হলুদ গুঁড়া ১ কাপ ও মরিচ গুঁড়া ১ কাপ, আদা বাটা আধা চা চামচ ও রসুন বাটা আধা চা চামচ, রসুনের কোয়া ৬-৭টি ও ধনে গুঁড়া ১ চা চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, তেল আধা কাপ, মাংসের মসলা আধা চা চামচ, টমেটো সস আধা কাপ ও টক দই ১ কাপ, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ ও লবণ স্বাদমতো।
প্রস্তুত প্রণালি: গরুর মাংস ধুয়ে নিয়ে একটি চালুনি পাত্রে রেখে পানি ঝরিয়ে নিন। এবার একটি পাত্রে মাংস, তেল, টক দই, হলুদ, মরিচ, আদা, রসুন, পেঁয়াজ, লবণসহ সব মসলা নিয়ে আধা ঘণ্টাখানেক মেরিনেট করে রাখুন। কড়াইতে তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে মাংস দিয়ে নেড়ে কষাতে হবে। কষানো হলে সামান্য পানি দিয়ে নেড়ে ঢেকে রাখতে হবে। মাংস সিদ্ধ হয়ে এলে টমেটো সস, কাঁচামরিচ ফালি ও রসুনের কোয়া দিয়ে ১০ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

কোফতা কারি
উপকরণ: গরুর কিমা আধা কেজি, ডিম ১টা, পাউরুটি ৩ পিস, মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, আদা-রসুন বাটা ২ চা চামচ, কালো গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ, ধনেপাতা ১ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ, লেবুর রস ১ চা চামচ, চিনি ১ চা চামচ ও লবণ স্বাদমতো।
প্রস্তুত প্রণালি: কিমা আধা সিদ্ধ করে বেটে নিতে হবে। এবার বাকি সব উপকরণ একসঙ্গে মেখে আধা ঘণ্টা নরমাল ফ্রিজে রেখে দিতে হবে। এই উপকরণ থেকে ১৬টা গোল গোল কোফতা বানিয়ে ডুবো তেলে ভাজতে হবে।


বিফ স্টেক
উপকরণ : গরুর চাকা মাংস আধা ইঞ্চি পুরু করে কাটা মিট হ্যামার দিয়ে হালকা ছেঁচে নেওয়া ৪ পিস। সয়াসস ১ টেবিল চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, রসুন মিহি কুচি ১ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো, সয়াবিন তেল ২ টেবিল চামচ।
প্রস্তুত প্রণালি: সব উপকরণ একসঙ্গে মেখে রাখতে হবে ৫-৬ ঘণ্টা। প্যানে সামান্য তেল ব্রাশ করে মৃদু আঁচে স্টেকগুলো ভেজে নিতে হবে। ভেজিটেবলের সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করতে হবে।


খাসির কাচ্চি বিরিয়ানি
উপকরণ
: পোলাওয়ের চাল ৪ কেজি, খাসির মাংস ১০ কেজি, আলু ভাজা আধা কেজি, পেঁয়াজ বেরেস্তা ২ কাপ, টক দই দেড় কাপ, আদা বাটা ৪ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ, শাহি জিরা ১ টেবিল চামচ, বাদাম কুচি আধা কাপ, মাওয়া ২৫০ গ্রাম, গুঁড়া দুধ ২৫০ গ্রাম, জাফরান ১ গ্রাম, গোলাপজল ২ টেবিল চামচ, কেওড়া জল ২ টেবিল চামচ, মালাই ২৫০ গ্রাম, আলুবোখারা ১০-১২টা, ঘি দেড় কাপ, তেল ১ কাপ, লবণ পরিমাণমতো, ১ কেজি আটা পানি দিয়ে শক্ত কাই বানানো, কাঠ-কয়লা ৬-৭ কেজি।
প্রস্তুত প্রণালি: জায়ফল আধা টেবিল চামচ, জয়ত্রী ১ টেবিল চামচ, বড় এলাচ ৩-৪টা, ছোট এলাচ ৭-৮টা, কাঠবাদাম ৫০ গ্রাম, কাবাব চিনি ১ টেবিল চামচ, সাদা গোলমরিচ ৭৫ গ্রাম, তেজপাতা ২টা, দারুচিনি ৪-৫ টুকরা, বাদাম বাদে সব উপকরণ হালকা টেলে গুঁড়া করে নিতে হবে।মাংস লবণ দিয়ে আধা ঘণ্টা মেখে রেখে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। ৩/৪ টুকরা দারুচিনি, এলাচ, শাহি জিরা মিশিয়ে চাল আধা সিদ্ধ করে নিতে হবে। যে পাতিলে কাচ্চি রান্না করা হবে, সেই পাতিলে মাংস রেখে এর সঙ্গে গুঁড়া করা মসলা, আদা-রসুন বাটা, টক দই তেল, ঘি, কেওড়া জল, গোলাপজল দিয়ে ভালো করে মাখাতে হবে মিনিমাম ১০ মিনিট। এবার মাংসের ওপর ভাজা আলু বিছিয়ে তার ওপর বেরেস্তা, মালাই আলুবোখারা, কাটা বাদাম সাজিয়ে দিতে হবে। এরপর রান্না করা চাল দিয়ে মাংস ভালো করে ঢেকে দিতে হবে। কুসুম গরম দুধে ভিজিয়ে রাখা জাফরান চালের ওপর দিয়ে দিতে হবে। এবার আটা দিয়ে ঢাকনাটি ভালো করে সিল করে দিতে হবে।

হাঁড়ির ওপর ও চারপাশে কাঠ-কয়লার আগুন দিতে হবে। হাঁড়ির তলায় প্রথম ১৫ মিনিট কাঠ পোড়াতে হবে, এরপর ২ থেকে আড়াই ঘণ্টা দমে রাখতে হবে।
কাচ্চি কাটার আগে পাতিল কাত করে তেল তুলে নিতে হবে। এরপর আগে চাল পরে মাংস কেটে ডিশে রাখতে হবে।

খাসির সাদা মাংস
উপকরণ: খাসির মাংস দেড় কেজি, আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, টক দই পানি ছাড়া, আধা কাপ গুঁড়া দুধ, আধা কাপ পেঁয়াজ বেরেস্তা, ১ কাপ আস্ত গোল আলু ঘিয়ে ভাজা ৭-৮টা, এলাচ ৩-৪টা, দারুচিনি ২-৩ টুকরা, সাদা গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, কাবাব চিনি ৮-১০টা, কেওড়া জল ১ টেবিল চামচ, জাফরান ১ চিমটি, কাজুবাদাম বাটা ১/৩ কাপ, কাঠবাদাম কুচি ৭-৮টা, ঘি ১ কাপ, আলুবোখারা ৪-৫টা, তেজপাতা ২টা, চিনি ও লবণ স্বাদমতো।
প্রস্তুত প্রণালি: আলু ভাজা, বাদাম কুচি, জাফরান ও কেওড়া জল ছাড়া বাকি সব উপকরণ দিয়ে ভারী তলাযুক্ত কোনো হাঁড়ি বা সসপ্যানে মাংস ম্যারিনেট করে রাখতে হবে ১ ঘণ্টা। ম্যারিনেট হলে আটা দিয়ে ঢাকনা ভালোভাবে সিল করে মাঝারি আঁচে ৩০ মিনিট দম দিতে হবে। এরপর ঢাকনা খুলে ভাজা আলু, বাদাম কুচি, কেওড়া জলে ভেজানো জাফরান ছড়িয়ে দিয়ে আরও ১০ মিনিট সিল করে দম দিয়ে নামিয়ে নিতে হবে। পরোটা, নান কিংবা পোলাওয়ের সঙ্গে পরিবেশন করতে হবে।

গরমে বোরহানি

উপকরণ: টক দই ১ কেজি, দুধ ১ কাপ, জিরা গুঁড়া আধা চা চামচ, ধনে গুঁড়া ১/৩ চা চামচ, কালো গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, সরিষা বাটা ১ চা চামচ, পুদিনা পাতা বাটা ১ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ বাটা ১ চা চামচ, চিনি স্বাদমতো, লবণ স্বাদমতো, বিট লবণ ১ চা চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ।
প্রস্তুত প্রণালি: সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। এরপর ছেঁকে বোতলে ভরে ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে পরিবেশন করতে হবে।

চিজি বিফ প্যাকেট
উপকরণ: গরুর মাংসের কিমা ১ কাপ, আদা-রসুন বাটা ১ চা চামচ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, পনির ১ কাপ, ময়দা ১ কাপ, লবণ, তেল পরিমাণমতো।
প্রস্তুত প্রণালি: ময়দায় লবণ, ১ টেবিল চামচ তেল ও পরিমাণমতো পানি দিয়ে খামি তৈরি করতে হবে। কড়াইয়ে তেল দিয়ে ১ টেবিল চামচ তেল দিয়ে পেঁয়াজ কুচি ভাজতে হবে। এরপর আদা-রসুন বাটা ও কিমা দিয়ে নাড়তে হবে। সিদ্ধ হয়ে গেলে গোলমরিচ দিয়ে নামিয়ে ফেলতে হবে। ঠান্ডা হলে এর সঙ্গে পনির কুচি মেশাতে হবে। ময়দার খামির ৪ ভাগ করে লম্বা পাতলা করে রুটি বেলতে হবে। মাঝখানে কিমার পুর দিয়ে একপাশ টেনে মাংস ঢেকে দিতে হবে। অন্য পাশ একটা ধারালো ছুরি দিয়ে লম্বা লম্বা দাগ কেটে চিরে ডিজাইন করে নিতে হবে। এবার চেরা অংশটা দিয়ে আগের মোড়ানো অংশ ঢেকে দিতে হবে। চারপাশ কাঁটা চামচ দিয়ে ভালো করে আটকে দিতে হবে যাতে ভাজার সময়ে খুলে না যায়। এবার ডুবো তেলে মাঝারি আঁচে মচমচে করে ভেজে নিতে হবে।

খাসির ঝুরা মাংস
উপকরণ: খাসির চাকা মাংস আধা কেজি, ক্যাপসিকাম (লাল, হলুদ, সবুজ) কুচি ১ কাপ, টমেটো কুচি ১টা, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন কুচি ১ টেবিল চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, পেঁয়াজ চৌকো করে কুচানো আধা কাপ, তেল আধা কাপ, ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো, চিনি ১ টেবিল চামচ।
প্রস্তুত প্রণালি: আদা ও লবণ দিয়ে মাংস সিদ্ধ করে ছাড়িয়ে নিতে হবে। কড়াইয়ে তেল দিয়ে রসুন কুচি দিয়ে ভাজতে হবে। এবার ক্যাপসিকাম, টমেটো কুচি, পেঁয়াজ দিয়ে ভাজতে হবে। এরপর মাংস দিয়ে আধা কাপ পানি দিয়ে দমে দিতে হবে। তেল উপরে ভেসে উঠলে গোলমরিচ, ধনেপাতা, কাঁচা মরিচ কুচি দিয়ে নামিয়ে ফেলতে হবে। গরম গরম ভাত, পরোটা, নান দিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

হান্টার বিফ
উপকরণ: চর্বি ও পর্দা ছাড়া গরুর মাংস ১ কেজি, সিরকা ১ কাপ, লেবুর রস ১/৪ কাপ, ক্যারামেল ২ টেবিল চামচ, আদা-রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ, সয়াসস ১/৩ কাপ, লবণ স্বাদমতো।
প্রস্তুত প্রণালি: মাংসের টুকরোটি ভালো করে কাঁটা চামচ দিয়ে কেচে নিতে হবে। এবার একটি কাচের বোলে মাংসের টুকরাটি রেখে সব উপকরণ দিয়ে ডুবিয়ে ৭২ ঘণ্টা নরমাল ফ্রিজে রাখতে হবে। মাংসের টুকরা এপাশ-ওপাশ করে দিতে হবে মাঝেমধ্যে। ডুবো পানিতে মাংস সিদ্ধ করতে হবে। মাংস শুকালে স্লাইস করে কেটে পনিরসহ পরিবেশন করতে হবে।

স্টেকের স্যতে ভেজিটেবল
উপকরণ: লাল, হলুদ, সবুজ ক্যাপসিকাম লম্বা করে কাটা ১ কাপ, ব্রকলি কাটা আধা কাপ, ফুলকপি কাটা আধা কাপ, বাঁধাকপি আধা কাপ, গাজর আধা কাপ, চিচিঙ্গা আধা কাপ লম্বা করে কাটা, পেঁয়াজ ২-৩টা ৪ ফালি করে ছাড়ানো, কাঁচামরিচ লম্বা করে কাটা ২-৩টা, ধনেপাতা কুচি ১ আঁটি, গোলমরিচ গুঁড়া ১/৩ চা চামচ, রসুন মিহি কুচি ১ টেবিল চামচ, লবণ-চিনি স্বাদমতো। তেল ২ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি: প্যানে তেল গরম করে রসুন হালকা বাদামি করে ভেজে নিতে হবে। এবার সব সবজি, স্বাদমতো লবণ ও ১ চা চামচ চিনি দিয়ে ফুল আঁচে সবজি রান্না করতে হবে। এ সময় প্যানে ঢাকনা দিয়ে রাখতে হবে। মাঝেমধ্যে সবজি নাড়া দিতে হবে। ৩ মিনিট পর পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ, ধনেপাতা গোলমরিচ দিয়ে আরও আধা মিনিট চুলায় রেখে নামিয়ে ফেলতে হবে। স্টেকের সঙ্গে পরিবেশন করতে হবে। 

বিষয় : রেসিপি রসুন গরুর মাংস ঈদের খাবার

মন্তব্য করুন