দেশে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর লঞ্চের ভাড়া পুনর্নির্ধারণে সাত সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়। এই কমিটি ভাড়া পুনর্নির্ধারণ করে জমা দিলে আগামী বুধবার এ–সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

সোমবার দুপুরে লঞ্চমালিকদের নিয়ে এক বৈঠক শেষে এসব তথ্য জানান নৌ পরিবহনসচিব মোস্তফা কামাল। তিনি বলেন, কমিটি আজ বিকেলের মধ্যেই ভাড়ার হার ঠিক করবে। ১০ আগস্ট এ–সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের জানানো হয়, ভাড়া পুনর্নির্ধারণে গঠিত সাত সদস্যের কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ফেরদৌস আলমকে। সদস্যসচিব করা হয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) পরিচালক রফিকুল ইসলামকে। কমিটির অন্য সদস্যের মধ্যে সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রণালয়, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ এবং বিআইডব্লিউটিএর প্রতিনিধি রাখা হয়েছে।

সরকার গত শুক্রবার সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম ৪২ থেকে সর্বোচ্চ ৫১ শতাংশ পর্যন্ত বাড়িয়েছে। ডিজেল ও কেরোসিনের মূল্য লিটারে ৩৪ টাকা বাড়িয়ে ১১৪ টাকা, পেট্রলের মূল্য লিটারে ৪৪ টাকা বাড়িয়ে ১৩০ টাকা এবং অকটেনের মূল্য লিটারে ৪৬ টাকা বেড়ে ১৩৫ টাকা করা হয়েছে। 

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর লঞ্চমালিকেরা লঞ্চভাড়া দ্বিগুণ করার প্রস্তাব করেন। লঞ্চভাড়া প্রথম ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত প্রতি কিলোমিটার ২ টাকা ৩০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৪ টাকা ৬০ পয়সা করার প্রস্তাব দেন। এ ছাড়া ১০০ কিলোমিটার–পরবর্তী প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া ২ টাকার জায়গায় ৪ টাকার প্রস্তাব করেন।

এ নিয়ে লঞ্চমালিকদের সঙ্গে আজ সচিবালয়ে বৈঠকে বসেন নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। আধা ঘণ্টার বৈঠক শেষে নৌ পরিবহনসচিব সাংবাদিকদের বলেন, তাঁরা (লঞ্চমালিকেরা) লঞ্চের ভাড়া দ্বিগুণ করার প্রস্তাব দিয়েছেন। কিন্তু তাঁরা যে প্রস্তাব দিয়েছেন, তা অনেক বেশি। ভাড়া এত বাড়ানো হবে না; আরও কম হবে। ভাড়া পুনর্নির্ধারণের আগপর্যন্ত বর্তমান ভাড়া কার্যকর থাকবে।

বৈঠকে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল সংস্থার সহসভাপতি সাইদুর রহমান বলেন, পদ্মা সেতু চালু হওয়ার কারণে নৌপথে যাত্রী কমে গেছে। এ জন্য গুলিস্তান থেকে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল পর্যন্ত রাস্তাটি যাত্রীদের চলাচলের জন্য সহজ করার দাবি জানান তিনি।

এ বিষয়ে নৌসচিব বলেন, গুলিস্তান থেকে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল পর্যন্ত সড়ক দিয়ে যাত্রী চলাচল সহজ করতে সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়কে জানানো হয়েছে। শুধু সদরঘাটের কথা বিবেচনা করে ভাড়া নির্ধারণ হবে না। সারা দেশের মানুষের কথা বিবেচনা করে ভাড়া ঠিক করা হবে, যাতে যাত্রীদের ওপর চাপ তৈরি না হয়।

প্রসঙ্গত, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর ইতিমধ্যে দূরপাল্লার বাসের ভাড়া ২২ দশমিক ২২ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এ ছাড়া ঢাকা, চট্টগ্রামসহ মহানগরগুলোয় বাস ভাড়া ১৬ দশমিক ২৭ শতাংশ ভাড়া বাড়ানো হয়েছে।