বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতে ৮০০ কোটি টাকার বেশি বিনিয়োগে আগ্রহী ভারতের উদ্যোক্তারা। রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিডা কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, ২৩ আগস্ট ভারতের রাজস্থানের রাজধানী জয়পুরে কনফেডারেশন অব ইন্ডিয়া ইন্ডাস্ট্রি এবং ইন্ডিয়া-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (আইবিসিসিআই) যৌথ উদ্যোগে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। 'ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্ভাবনা' শীর্ষক ওই সভায় বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের আগ্রহের কথা জানান ভারতীয় উদ্যোক্তারা।

বিডার চেয়ারম্যান জানান, জয়পুরে বাংলাদেশের বিভিন্ন কোম্পানির সঙ্গে বিনিয়োগ করতে ভারতীয় কয়েকটি কোম্পানি ৯টি আগ্রহপত্র (ইওআই) স্বাক্ষর করেছে। এর মধ্যে নিটল-নিলয় গ্রুপের সঙ্গে টিভিএস থ্রি হুইলার কার্গোর ৩০০ কোটি টাকার ইওআই সই হয়েছে। এ ছাড়া ভারতীয় বিনিয়োগকারীরা ডিজেল জেনারেটর, সরিষার তেল, মার্বেল অ্যান্ড গ্রানাইট, জুয়েলারি শিল্প, সিলভার, পর্যটনসহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগ করতে চান।

তিনি বলেন, ভারতের ব্যবসায়ীরা এ দেশে বিনিয়োগ করলে এখান থেকে পণ্য তাঁদের দেশে রপ্তানি হবে। এটি দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ঘাটতি কমাবে। সিরাজুল ইসলাম বলেন, আগামী ৭ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারত সফর করবেন। তখন কনফেডারেশন অব ইন্ডিয়া ইন্ডাস্ট্রি ও ফরেন চেম্বারের সঙ্গে বৈঠক হবে। সেখানে বিনিয়োগ নিয়ে আলোচনার কথা রয়েছে।

আইবিসিসিআইর সভাপতি মাতলুব আহমাদ বলেন, ভারতীয় ব্যবসায়ীরা বর্তমানে বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগের চেয়ে বেশি আগ্রহী। অনেকেই যৌথভাবে বিনিয়োগ করতে বাংলাদেশি উদ্যোক্তা খুঁজছেন। তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে প্রায় ২ বিলিয়ন ডলারের পণ্য রপ্তানি হয় ভারতে। এই রপ্তানি ৩ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করার লক্ষ্য রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আইবিসিসিআইর সহসভাপতি শোয়েব চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এসএম আবুল কালম আজাদ ও বিডার কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।