প্রযুক্তির উৎকর্ষে প্রযুক্তি পণ্যগুলো হয়ে উঠছে আরও সহজলভ্য, বুদ্ধিদীপ্ত এবং আরও স্মার্ট। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে এতে যুক্ত হচ্ছে নিত্যনতুন নানা সুবিধা। প্রয়োজন ও ধরন অনুযায়ী ল্যাপটপ এখন ব্যক্তিগত কম্পিউটার শিল্পে একটি দ্রুতবর্ধনশীল জরুরি পণ্য। আপনি ল্যাপটপ যে কাজেই ব্যবহার করুন না কেন, এমন কিছু আনুষঙ্গিক ডিভাইস কিংবা অ্যাকসেসরিজ রয়েছে; যা ব্যবহারে ল্যাপটপের কার্যকারিতা আরও বাড়িয়ে দেবে, ল্যাপটপ হয়ে উঠবে আরও স্মার্ট। এমন ১২টি ল্যাপটপ আনুষঙ্গিক পণ্যে তালিকা প্রকাশ করেছে প্রযুক্তি পোর্টাল 'গ্যাজেটসনাউ'। এটি ব্যবহারের মাধ্যমে আপনার প্রিয় ল্যাপটপটি আরও স্মার্ট করে তুলতে পারেন।
স্টাইলাস: স্টাইলাস একটি কলমের মতো ডিভাইস যা টাচস্ট্ক্রিন ডিসপ্লেতে কাজ করে। এর মাধ্যমে লেখালেখি, আঁকাআঁকি থেকে শুরু করে অনেক কাজই করা সম্ভব। খাতায় লেখার মতো স্ট্ক্রিনে লেখার অসাধারণ একটি পণ্য স্টাইলাস। বেশিরভাগ ল্যাপটপ স্টাইলাস বান্ডিলসহ আসে না। তাই একটি তৃতীয় পক্ষের স্টাইলাস কিনে যে কোনো টাচস্ট্ক্রিন ডিসপ্লের সঙ্গে ব্যবহার করা যাবে।
ইউএসবি-চালিত ল্যাম্প: ইউএসবি-চালিত এলইডি ল্যাম্প অন্ধকারে কাজ করতে সাহায্য করে। এটি আপনার ল্যাপটপের জন্য আরেকটি দুর্দান্ত আনুষঙ্গিক হয়ে উঠতে পারে। এটি সহজেই বহন করা যায়। সাশ্রয়ী দামে বিভিন্ন ধরন ও আকারে পাওয়া যায়। ল্যাপটপ ব্যবহারের সঙ্গে সঙ্গে পড়ার জন্য ভালো আলোকসজ্জা দেয় এবং আপনার কিবোর্ডের জন্য 'ব্যাকলিট' হিসেবেও কাজ করতে পারে।
অ্যান্টি-গ্লেয়ার ফিল্টার: এটি চোখের চাপ কমায়। ল্যাপটপ প্রখর আলো নির্গত করে তা চোখের জন্য বিরক্তির কারণ হতে পারে। এটি কমাতে আপনি আপনার স্ট্ক্রিনের শীর্ষে অ্যান্টি-গ্লেয়ার যোগ নিতে পারেন। এটি শুধু স্ক্রিন থেকে প্রতিফলন কমিয়ে দেবে তা নয়, এমনকি বাইরের বিষয়বস্তু পরিস্কারভাবে দেখতে সাহায্য করবে। আবার একটি গোপনীয়তা স্ট্ক্রিন ফিল্টার ব্যবহার করার ফলে আপনার স্ক্রিনে পাশ থেকে কাউকে উঁকি দিয়ে দেখতেও বাধা দেবে।
ক্যামেরা শাটার: দুর্ঘটনাজনিত ক্লিক এবং হ্যাকারদের থেকে রক্ষা করে করবে এটি। ক্যামেরার শাটার দুর্ঘটনাজনিত ছবি তোলার ক্ষেত্রে সাহায্য করবে। এমন স্পাইওয়্যার বা ম্যালওয়ার রয়েছে, যা আপনার অজান্তে ক্যামেরা ব্যবহার করার চেষ্টা করতে পারে। এ ক্ষেত্রে এই ক্যামেরা শাটার অত্যন্ত কার্যকরী ভূমিকা পালন করতে সক্ষম।
ল্যাপটপ পাওয়ার ব্যাংক: আপনার ল্যাপটপের ব্যাটারি লাইফ ভালো থাকা সত্ত্বেও যখন আপনার কাজ করার প্রয়োজন হবে, তখন আপনার ল্যাপটপের পাওয়ার শেষ হয়ে যেতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে ল্যাপটপের জন্য একটি পাওয়ার ব্যাংক নিতে পারেন। শুধু এটি নিশ্চিত করতে হবে, আপনার ল্যাপটপের চার্জিং পিনের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ এবং এতে কমপক্ষে ১০০০০ এএমএইচ ব্যাটারি রয়েছে।
ল্যাপটপ স্ট্যান্ড: সঠিক অবস্থানে রাখার জন্য একটি ল্যাপটপ স্ট্যান্ড ব্যবহার করতে পারেন। ল্যাপটপ সহজে বহন করতে সক্ষম পারে এটি। যে কোনো স্থান থেকে কাজ করার সুবিধা দেবে ব্যবহারকারীকে। তবে আরামের জন্য অসামঞ্জস্য ভঙ্গিতে ব্যবহার করলে পিঠে ব্যথাসহ নানা স্বাস্থ্যগত সমস্যা হতে পারে। এটির মাধ্যমে ল্যাপটপকে ডেস্কটপের মতো কাজের অবস্থান করে নিতে দেওয়ায় ল্যাপটপ স্ট্যান্ড আপনাকে কাজ করার সময় আপনার ভঙ্গি ঠিক রাখতে সাহায্য করবে।
কুলিং প্যাড: দীর্ঘ গেমিং সেশনের জন্য এটি অত্যন্ত কার্যকর। কুলিং প্যাড সাধারণত দীর্ঘ গেমিং সেশনের সময় ল্যাপটপকে ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে এবং দীর্ঘমেয়াদে ল্যাপটপের কর্মক্ষমতা বজায় রাখতে সহায়তা করে।
ওয়েবক্যাম: আপনি যদি অনেকগুলো কনফারেন্স কল করেন, তবে একটি ভালো মানের ওয়েবক্যাম প্রয়োজন হবে। বেশিরভাগ ল্যাপটপ ক্যামেরাসহ আসে, তবে এতে যেই ক্যামেরা ব্যবহার করা হয় তা বেশিরভাগই মৌলিক এবং প্রাথমিক। ভালো রেজ্যুলেশন এবং সামঞ্জস্যযোগ্য হেডসহ ভালো মানের ওয়েবক্যাম ব্যবহার করুন।
রিং লাইট: সঠিক আলো পেতে রিং লাইট অনন্য। সাশ্রয়ী মূল্যের কিন্তু কার্যকরী আনুষঙ্গিক যা ভিডিও কনফারেন্সিং, অনলাইন গেমিং বা অনেক ব্লগিং করেন তাঁদের জন্য কার্যকরী একটি অনুষঙ্গ হতে পারে। একটি ছোট বৃত্তাকার ডিভাইসটি অনেক ছোট ছোট এলইডি থাকে, যা চালু করলে মুখ সমানভাবে আলোকিত করে।
ইউএসবি টাইপ-সি হাব: এটি আপনাকে বিভিন্নভাবে সংযুক্ত থাকতে সাহায্য করবে। আধুনিক ল্যাপটপ, ম্যাকবুক এয়ার, এইচপি স্পেক্টার এক্স৩৬০-এর মতো বিশেষ করে পাতলা এবং হালকা ল্যাপটপে সাধারণত কয়েকটি ইউএসবি টাইপ-সি পোর্টের সঙ্গে আসে। ফলে আপনি যদি অন্য ইউএসবি ডিভাইস বা ইথারনেট কেবল বা এসডিএমআই ব্যবহার করতে চান, তাহলে এমন কোনো বিকল্প নেই। তাই একটি সাধারণ ইউএসবি টাইপ-সি হাব এই সমস্যার সমাধান করতে পারে। এগুলো একাধিক আকার, ধরন ও পোর্টযুক্ত হয়ে থাকে।
কিবোর্ড কভার: কিবোর্ড কভারটি একটি জেলির মতো স্তর, যা পুরো কিবোর্ডকে ডেকে রাখে। অধিক ব্যবহার, তরল ও ধুলা জাতীয় বস্তু কিবোর্ডে পড়ার ফলে কিবোর্ডগুলো ছুটে যাওয়া কিংবা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এ সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে কিবোর্ড কভার কার্যকর ভূমিকা রাখে। এটি ব্যবহারে ধুলাবালি, তরল পানীয় ল্যাপটপের ভেতরে প্রবেশে বাধা দেয়।
ল্যাপটপ লক: ল্যাপটপের জন্য শারীরিক নিরাপত্তা হচ্ছে লক। আপনি যদি বাইরে কোনো ক্যাফে, রেস্তোরাঁয় ল্যাপটপ ব্যবহার করতে চান বা হোস্টেলে বা শেয়ার আবাসনে থাকতে চান তাহলে এটি বেশ কাজে আসবে। এটি আপনার ল্যাপটপ চুরি হওয়া থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করবে।

বিষয় : স্মার্ট ল্যাপটপ

মন্তব্য করুন