নাচঘরে জেগে আছে ঘুমন্ত নূপুর। তার ধ্বনি তুমি বহুবার শুনেছ।
গাছের মেয়েদের ধরেছে পুংরোগে। টগরতলায় রানার ফোঁড়ন পটিয়স সুরে রাঁধছে অভিধান ধান।
মাঠে ফলেছে উড়ে যাওয়া পাখিগান। পাখি, তোমরা আর একবার এসো বোসো। তোমাদের নাম দেব প্রিয় পাখি বসু।
পৃথিবীর চিনির পাত্র বাতাসে মিলিয়ে যাওয়া হাওয়াই মিঠাই। জাদুর পাহাড় জলপথ দিয়ে যে সুপেয় পথ তৈরি করেছে, তার ঢেউ গুনে সম্মোহিত গ্রাম।
নীরদ নকশিকাঁথার পাগড়ি মাথায়, উঠোনে খেলেন ধর্মযাজক। মেষপালকের লাঠি রৌদ্রছায়ায়। মাথার ওপর আকাশ বড্ড কালো-ভারী। মেঘের মন মুছতে তুমি চিরকাল ইরেজার।
তবু কি আকাশ পরিস্কার হয় নীলের মতো?

বিষয় : পদাবলি

মন্তব্য করুন