[জুলফিকার মতিন, শ্রদ্ধাভাজনেষু]
মনের সুখে দোল খেয়েছি
আমার বাড়ির খোলা ছাদে।
আশা ছিল,
চোখের সুখে দেখব তাকে
পাশের বাড়ির ভেজা রোদে।

মুখটি আজও হয়নি দেখা,

শীত গিয়েছে আমায় ফেলে, যাবার সময় বলেছিল,
ফিরব আবার,
এসে যেন দেখতে পারে তোমার পাশে
দোলনাজুড়ে বসে আছে নতুন কেউ
লাল ঘোমটা মাথায় দিয়ে,

শীতের কথা রেখেছিলাম মনের কোঠায়
হয়নি পূরণ।
সাধ আহদ্মাদ,

সেদিন থেকে দোলনা আমার ভীষণ একা
কেউ আসে না তাহার কাছে,
পাশের বাড়ির শাড়ির আঁচল,

দোহার পাড়ার কঙ্কাবতী, রূপবতী,
চায় না ফিরে তাহার দিকে
দোলনা কাঁদে গভীর রাতে

মান-অভিমান ছিল আমার হৃদয় ক্ষতে,
আলনা এখন চায় না ফিরে আমার দিকে।

সেদিন আমি মনের ক্ষোভে
পুড়িয়ে দিলাম,
আমার প্রিয় দোলনাটিকে।

চৈত্র মাসের তপ্ত রোদে


বিষয় : পদাবলি

মন্তব্য করুন