কয়টা মিনি কয়টা হুলো
বেড়াল ছিলো অনেকগুলো।
লেজ নাড়িয়ে ঘুরতো কতো
ওরা বাঘের মাসির মতো।
চার পা নেড়ে খেলতো ওরা
মিলেমিশে জোড়া জোড়া।
ওদের খেলার বলও ছিলো
অনেক অনেক ডলও ছিলো।
ওদের খেলার সময় হলে
আমার কাছেই আসতো চলে।
খেলনাগুলো ছড়িয়ে দিয়ে
খেলতাম আমি ওদের নিয়ে।
দেখার মতো দৃশ্য বটে
ভাসছে সবই স্মৃতিপটে।
একটা ডাকে মিঁউ মিঁউ মিঁউ
ভাববে শুনে 'ইউ ইউ ইউ'।
ইংরেজিতে পাকা ওরা
পড়া শেষেই খেলা, ঘোরা।
একটা ডাকে ম্যাঁও ম্যাঁও ম্যাঁও
কী বলে নিজেই বুঝে 'নেও'।
সব মিলিয়ে টিন টিনা টিন
ভালোই কেটে যাচ্ছিলো দিন।

হঠাৎই এক ভাইরাস এলো
তারপরে সব এলোমেলো।
ঔষধ খাওয়াই করে না কাজ
হায়রে আমার মাথাতে বাজ!
একে একে বিড়ালগুলো
রোগে ভুগে ঢুলো ঢুলো।
চলে গেলো আমায় ছেড়ে
ডাকি ওদের খাবার বেড়ে।
আসে না কেউ দেয় না সাড়া
নেই তো ভালো ওদের ছাড়া।
ওদের কে যে কেড়ে নিলো;
আমার অনেক বেড়াল ছিলো!

বিষয় : ছড়া কবিতা

মন্তব্য করুন