মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে নির্ধারিত সময়ে নির্বাচন না হওয়ায় আগামী এক বছর বাংলাদেশ বার কাউন্সিল পরিচালনার জন্য ১৫ সদস্যের অ্যাডহক কমিটি গঠন করেছে সরকার। বাংলাদেশ লিগ্যাল প্রাকটিশনার্স অ্যান্ড বার কাউন্সিল অর্ডার, (সংশোধন) ১৯৭২-এর ৮ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী এ কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে বুধবার আইন মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ থেকে এ-সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

আইন সচিব মো. গোলাম সারোয়ারের বরাত দিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনার কারণে নির্ধারিত সময়ে বার কাউন্সিলের নির্বাচন অনুষ্ঠান করা সম্ভব না হওয়ায় এই অ্যাডহক বার কাউন্সিল গঠন করা হয়েছে। পদাধিকার বলে অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন অ্যাডহক বার কাউন্সিলের চেয়ারম্যান। এই অ্যাডহক কমিটির মেয়াদ ২০২২ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত।

প্রকাশিত গেজেটে বলা হয়, এই কমিটি আগামী বছরের ৩১ মে বা তার আগে 'বার কাউন্সিলের নির্বাচন' সম্পন্ন করবে এবং নির্বাচনের মাধ্যমে গঠিত বার কাউন্সিল ১ জুলাই থেকে দায়িত্ব গ্রহণ করবে।

অ্যাডহক কমিটির অপর সদস্যরা হলেন সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, আব্দুল বাসেত মজুমদার, সৈয়দ রেজাউর রহমান, মোখলেছুর রহমান বাদল, জেড আই খান পান্না, শাহ মো. খসরুজ্জামান, মো. কামরুল ইসলাম, কাজী নজীবুল্লাহ হিরু, চট্টগ্রাম আইনজীবী সমিতির মুজিবুল হক, সিলেট আইনজীবী সমিতির এ এফ মো. রুহুল আনাম চৌধুরী মিন্টু, ময়মনসিংহ আইনজীবী সমিতির কবির উদ্দিন ভূঞা, খুলনা আইনজীবী সমিতির পারভেজ ইসলাম খান, রাজশাহী আইনজীবী সমিতির মো. ইয়াহিয়া ও সিরাজগঞ্জ আইনজীবী সমিতির মো. আব্দুর রহমান।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় জরুরি সভা করে গত ৩ এপ্রিল বার কাউন্সিলের নির্বাচন স্থগিত করা হয়। এর আগে ১৮ মার্চ বার কাউন্সিল নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। তফসিল অনুযায়ী গত ২৫ মে নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গত ২৬ জুলাই মন্ত্রিসভার ভার্চুয়াল বৈঠকে বার কাউন্সিলে অ্যাডহক কমিটি করতে একটি অধ্যাদেশ সংশোধনের অনুমোদন দেয় সরকার। পরে ২৮ জুলাই এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। ওই প্রজ্ঞাপনের পর মঙ্গলবার আরেকটি প্রজ্ঞাপনে কমিটির নাম ঘোষণা করা হয়।