'কাতারের সঙ্গে লড়াইয়ের সামর্থ্য নেই'

প্রকাশ: ০৭ অক্টোবর ২০১৯     আপডেট: ০৭ অক্টোবর ২০১৯       প্রিন্ট সংস্করণ     

ক্রীড়া প্রতিবেদক

ছবি: ফাইল

বাংলাদেশের ফুটবলের জন্য এটা ঐতিহাসিক ম্যাচ। বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে ১০ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে কাতারের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। র‌্যাংকিং এবং সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স সবকিছুর বিচারে ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজক দেশটি অনেক এগিয়ে। তাদের সঙ্গে সমানতালে পাল্লা দেওয়াও কঠিন। বাফুফে সভাপতি কাজী মোহাম্মদ সালাউদ্দিনও তাই মনে করছেন।

রোববার বাফুফে ভবনে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, 'কাতার প্রতিপক্ষ হিসেবে আমাদের জন্য অনেক কঠিন। আমি জানি, তাদের বিপক্ষে হয়তো আমাদের ছেলেরা সে রকম কিছু করতে পারবে না। আমরা ওই মানের নই। আসলে তাদের সঙ্গে লড়াই করার মতো সামর্থ্য নেই আমাদের। তবু ছেলেদের সাহসী ফুটবল খেলতে হবে। লড়াই করার মানসিকতা নিয়ে নামতে হবে। ছেলেদের নিজেদের সেরাটা মেলে ধরতে হবে। আমি চাই তারা সেরাটা দিয়ে খেলুক।'

গত ২৯ সেপ্টেম্বর ও ৩ অক্টোবর ভুটানের বিপক্ষে দুটি প্রীতি ফুটবল ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ। প্রথমটিতে ৪-১ এবং দ্বিতীয় ম্যাচে ২-০ গোলে জিতেছিল লাল-সবুজের দলটি। এখন কাতার ম্যাচের প্রস্তুতিতে জামাল ভূঁইয়ারা। প্রতিপক্ষ হিসেবে কাতার অনেক শক্তিশালী হলেও গত বছর এশিয়ান গেমসে তাদের হারানোর অভিজ্ঞতা আছে বাংলাদেশের। যদিও সেই দলটি ছিল অনূর্ধ্ব-২৩। আর নিজেদের মাঠে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপকে সামনে রেখে আলাদা পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামে কাতার। তবে গ্রুপ 'ই'-তে গত মাসে এই কাতারকে গোলশূন্যভাবে রুখে দিয়েছিল ভারত। সেই ম্যাচকে প্রেরণা হিসেবে নিচ্ছেন বাংলাদেশ কোচ জেমি ডে। রোববার অনুশীলন শেষে তিনি বলেন, 'কাতার কতটা শক্তিশালী তা সবাই জানে। তাদের হারানো অনেক কঠিন। তাই বলে আমরা হাল ছেড়ে দেবো না। ইতিবাচক ফুটবল খেলাই আমাদের লক্ষ্য।'

১০ সেপ্টেম্বর তাজিকিস্তানের দুশানবে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে ১-০ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। হারলেও ছেলেদের পারফরম্যান্সে সবাই মুগ্ধ। যেমন মুগ্ধ সালাউদ্দিনও। তার মতে, বাংলাদেশের ফুটবলের ইতিহাসে এটাই সেরা দল, 'আপনারা হয়তো আমার সঙ্গে একমত হবেন যে, এটাই এদেশের ফুটবল ইতিহাসের সেরা দল। আমাদের সময় মানুষ আসত খেলা দেখতে। এখন সেটা পাল্টে গেছে। মানুষ আর আগের মতো মাঠে আসে না। তবে আমি মনে করি, এই দর্শকখরাও একসময় কেটে যাবে।'

কাতার ম্যাচের পরই প্রতিবেশী দেশ ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ১৫ অক্টোবর কলকাতার সল্টলেকে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে। এই ম্যাচ নিয়েও খুব বেশি আশাবাদী নন বাফুফে সভাপতি, 'পাঁচ বছর আগের ভারত আর আজকের ভারত এক নয়। তারা মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে। আমরা এ পর্যায়ে পিছিয়ে গেছি। আমার সময় যে ভারতের বিপক্ষে খেলেছি, সে ভারত আর এই ভারত তো এক নয়। গত কয়েক বছরে তারা অনেক উন্নতি করেছে।'

ভুটানের বিপক্ষে দুই ম্যাচে ৬ গোল করেছে বাংলাদেশ। স্ট্রাইকার নাবীব নেওয়াজ জীবন করেন জোড়া গোল। দ্বিতীয় ম্যাচে ডিফেন্ডার ইয়াসিন খানও করেছিলেন দুই গোল। ফুটবলাররা গোল  পাওয়ায় খুশি সালাউদ্দিন, 'গোল তো ফুটবলেরই একটা পার্ট। খেলায় গোল হবেই। ছেলেরা গোল পাওয়া আমি খুশি।'