বিদেশ সফর নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্ন এড়িয়ে গেলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: ০১ আগস্ট ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক— ফাইল ছবি

সংবাদ সম্মেলন ডেকেও তা বাতিল করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বিদেশ সফর নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নও এড়িয়ে গেলেন।

সারাদেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি বিস্তারের মধ্যেই বিদেশ গিয়েছিলেন তিনি। তার এই বিদেশ যাওয়া নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে সর্বস্তরে সমালোচনার ঝড় ওঠে। এরপর সফর সংক্ষিপ্ত করে গত বুধবার মধ্যরাতে দেশে ফেরেন তিনি।

মন্ত্রীর দেশে ফেরার আগে মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ শাখা থেকে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়েছিল, বৃহস্পতিবার বেলা ২টায় ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে তিনি সংবাদ সম্মেলনে কথা বলবেন। এর আগে সকালে রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতালে ডেঙ্গু ওয়ার্ড উদ্বোধন করতে যাবেন।

সে অনুযায়ী স্বাস্থ্যমন্ত্রী সকালে মিটফোর্ড হাসপাতালে গিয়ে ডেঙ্গু ওয়ার্ড উদ্বোধন করলেন। সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকরা ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে তার বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি এড়িয়ে যান। সাংবাদিকরা কয়েক দফা চেষ্টা করেও তার সঙ্গে কথা বলতে ব্যর্থ হন। মিটফোর্ড হাসপাতালে ডেঙ্গু ওয়ার্ড উদ্বোধন শেষে সচিবালয়ে ফিরে আসেন মন্ত্রী।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন কাভার করতে সাংবাদিকরা মন্ত্রণালয়ে উপস্থিত হন। আকস্মিকভাবে বেলা ২টার দিকে ওই সংবাদ সম্মেলন বাতিল করা হয়। মন্ত্রীর দপ্তর থেকে জানানো হয়, তিনি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে একটি গুরুত্বপূর্ণ সভায় আছেন। সেটি শেষ হওয়ার পর কয়েকটি হাসপাতাল পরিদর্শনে যাবেন। তাই সংবাদ সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনের সময় পরে জানানো হবে।

এ ঘটনায় উপস্থিত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। অপেক্ষমাণ সাংবাদিকরা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সভাস্থলে প্রবেশ করে পূর্বনির্ধারিত সংবাদ সম্মেলন স্থগিতের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন। বিষয়টি বাদানুবাদের পর্যায়ে গেলে স্বাস্থ্যমন্ত্রীই প্রশ্ন করার অনুমতি দেন। সেখানে ভয়াবহ ডেঙ্গু পরিস্থিতির মধ্যে তার বিদেশ যাত্রা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ধমক দিয়ে এক সাংবাদিককে থামিয়ে দিয়ে অন্য প্রসঙ্গে যেতে বলেন।

পরে প্রসঙ্গ পাল্টে এক সাংবাদিক মন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন করেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নীতিমালা অনুযায়ী দেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতিকে মহামারি ঘোষণা করা যায় কি-না। মন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন করা হলেও সচিব ফ্লোর কেড়ে নিয়ে বলেন, 'এটি রাজনৈতিক বিষয় নয়, টেকনিক্যাল বিষয়। এটা মন্ত্রীর জবাব দেওয়ার বিষয় না। এটি জটিল বিষয়।'