ব্র্যাডলির বিচ্ছেদের কারণ লেডি গাগা!

প্রকাশ: ১৮ জুন ২০১৯     আপডেট: ১৮ জুন ২০১৯      

বিনোদন ডেস্ক

লেডি গাগা

হলিউড তারকাদের ব্যক্তিগত জীবনে রয়েছে নানা উত্থান-পতন। চলার পথে কাউকে আজীবনের সঙ্গী হিসেবে পথচলার শপথ নিলেও পরক্ষণে সে ব্যক্তি ব্রাত্য হয়ে পড়েন। এ যেমন কিছুদিন আগেই ব্র্যাডলি কুপার ও ইরিনা শায়েকের বিচ্ছেদ হয়েছে। কিছুদিন আগেও দু'জন হাতে হাত রেখে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নিতেন। কিন্তু ব্রিটিশ বিভিন্ন গণমাধ্যমের দাবি, পপ তারকা লেডি গাগার কারণেই এ জুটি বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পিপলস ম্যাগাজিনের দাবি, আ স্টার ইজ বর্ন ছবিটি বাস্তবে ব্র্যাডলি ও ইরিনার সম্পর্কে অনেক প্রভাব বিস্তার করেছিল। 

সংবাদমাধ্যমটির বরাত দিয়ে তাদের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানায়, এ ছবির প্রচার-প্রচারণায় অংশ নিতে ব্র্যাডলি ও গাগা নানা স্থানে একসঙ্গে গিয়েছেন। মূলত এ সময়ই নাকি তাদের মধ্যকার প্রেমের সম্পর্কের বিষয়টি নিয়ে কথাবার্তা চাউর হয় এবং ইরিনার সঙ্গে ব্র্যাডলির সংকট শুরু হয়। যদিও আ স্টার ইজ বর্ন ছবিতে গান গেয়ে, অভিনয় করে ব্র্যাডলি-গাগা দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন, অস্কার পুরস্কারও জিতেছেন। মূলত এ ছবির কারণেই ব্র্যাডলির দাম্পত্য জীবনে সংকট শুরু হয়। অবশ্য এর আগে যখন গুঞ্জন উঠেছিল, গাগা-ব্র্যাডলি প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছেন, তখন সহাস্যে তা অস্বীকার করেছিলেন লেডি গাগা। 

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে ৪৪ বছর বয়সী ব্র্যাডলি কুপার এবং ৩৩ বছরের ইরিনা শায়েক আনুষ্ঠানিকভাবে আলাদা থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তখন ব্র্যাডলি কুপার ও ইরিনা শায়েকের বন্ধুদের বরাত দিয়ে পিপল জানিয়েছিল, বেশ কিছুদিন ধরে ব্র্যাডলি-ইরিনার মধ্যে শীতল যুদ্ধ চলছিল এবং শেষ পর্যন্ত বিচ্ছেদের মাধ্যমেই সমস্যা সমাধানের পথ বেছে নিয়েছেন তারা। ব্র্যাডলি কুপার ও রাশিয়ান মডেল ইরিনা শায়েকের দুই বছরের এক কন্যাসন্তান রয়েছে। আইনগত বিষয়াদি মেনেই তারা সন্তানকে বড় করে তোলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এদিকে এ ঘটনায় লেডি গাগা এখনও কোনো মন্তব্য করেননি।