বসন্ত বাতাসে আজ ভালোবাসার দিন। দিনটিকে ঘিরে বেড়েছে গোলাপের দাম। অন্যদিন যে গোলাপ বিক্রি হয় পাঁচ টাকায় আজ তা বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়। পাচটি গোলাপ আর দুইটি রজনীগন্ধার একটি তোরা ১০০ টাকা দাম চাইতে কুণ্ঠা বোধ করছেন না শাহবাগের ফুল দোকানিরা। সকালে রাজধানীর শাহবাগে ফুলের বাজারে গিয়ে দেখা গেলো এমন চিত্র।

রাজধানীতে সবজির বড় আড়ৎ কারওয়ান বাজারেও একই চিত্র দেখা গেলো। কারওয়ান বাজারের জাহাঙ্গীর টাওয়ারের সামনে বসেছে ফুলের দোকান। এগুলো ভাসমান। দোকানে টেবিলে চেরি, গাঁদা, জিপসি, গোলাপ, গ্লাডিওলাস, রজনীগন্ধাসহ নানা ফুলের সমারোহ । কয়েক ধরনের ফুল দিয়ে বানানো হচ্ছে রিং তোড়া। এই রিং তোড়ার দাম হাকাচ্ছেন ১৫০ টাকা। হলুদ পাঞ্জাবি, শাড়ি পরে তরুণ-তরুণীরা এই দোকানে ভিড় করছেন।

কারওরান বাজারের ফুল বিক্রেতা মাসুম বিল্লাহর কাছে জানতে চাওয়া হয় আজ কেমন বিক্রি? কণ্ঠে কিছুটা হতাশার এনে তিনি বলেন, কই আর বিক্রি হচ্ছে! ক্রেতা কম। করোনার কারণে খুব একটা বের তো হচ্ছে না মানুষ। অন্য বছরের চেয়ে বিক্রি অর্ধেক বলতে পারেন।

রাজধানী কারওয়ান বাজারে ভাসমান একটি ফুলের দোকান

মাসুম বিল্লাহ জানান, দুইদিন আগেও একটি গোলাপ ৫ টাকায় বিক্রি করেছেন তিনি। আজ একেকটি গোলাপ বিক্রি করছেন ৪০ থেকে ৫০ টাকায়। গ্লাডিওলাস সাদা প্রতি স্টিক ৩০ টাকা, গাঁদা প্রতিটি ৭ থেকে ১০ টাকা এবং রজনীগন্ধা ২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

শাহবাগে গোলাপ কিনতে আসা শিশির আহমেদ বেশ ক্ষোভের সঙ্গে জানান, লাল গোলাপ কিনতে এসেছি; কিন্তু এসে তো অবাক। আজ গোলাপের দাম বাড়বে সেটা জানি, তাই বলে এক গোলাপের দাম ৫০টাকা হবে, এটা ধারণার বাইরে। 

মন্তব্য করুন