মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, ইলিশের উৎপাদন বাড়াতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ব্যাপক পরিকল্পনা নিয়েছে। অন্য মাছের ক্ষেত্রেও গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। দেশের কোনো জলাশয় অব্যহৃত থাকবে না। যেখানে যে প্রকৃতির মাছ উৎপাদন করা যায়, সেখানে সেই মাছ উৎপাদনে সব সহায়তা করা হবে। আন্ধারমানিক নদীসহ যেসব নদীতে আগে ইলিশ ছিল কিন্তু এখন নেই, কেন নেই তা গবেষণা করা হচ্ছে।

সোমবার দুপুরে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট, নদী উপকেন্দ্র কলাপাড়ায় নবনির্মিত তিনতলা অফিস কাম গবেষণাগার ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নির্বাচন প্রক্রিয়ার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, বিরোধী দলের পক্ষ থেকে নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার দাবি করা হচ্ছে যা নিতান্তই তাদের মুর্খতা। কারণ সংবিধানে এ জাতীয় কোনো সরকার ব্যবস্থা নেই। অতীতে সংযুক্ত করা হলেও উচ্চ আদালত বলেছেন, গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থায় অনির্বাচিত কাউকে রাষ্ট্রক্ষমতায় দেওয়ার কোনো বিধান নেই। বিএনপি ও তার জোট যেটা দাবি করছে, তা সংবিধান পরিপন্থি।

অনুষ্ঠানে বিএফডিসির চেয়ারম্যান অতিরিক্ত সচিব কাজী হাসান আহমেদ, সচিব মুহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ, মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের প্রকল্প পরিচালক জামাল হোসেন মজুমদার, বিএফডিসির পরিচালক (অর্থ) মঞ্জুর হাসান ভূঁইয়া, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহম্মেদ আলী, উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এস এম রাকিবুল আহসান, কলাপাড়ার ইউএনও আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরে মন্ত্রী কলাপাড়া উপজেলার মৎস্যবন্দর মহিপুর এবং আলীপুরে বিএফডিসির নবনির্মিত মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র দুটির উদ্বোধন করেন। তিনি সেখানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, জেলেদের আহরিত ইলিশসহ সব মাছের গুণগতমান রক্ষা করে বিক্রি করতে অবতরণ কেন্দ্রে সব সুযোগ তৈরি করা হয়েছে।