নাটোরের ছেলে শেখ রিফাদ মাহমুদ শিশুদের নোবেলখ্যাত আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কার-২০২১-এর জন্য মনোনীত হয়েছে। নেদারল্যান্ডসের কিডস রাইটস ফাউন্ডেশন তাকে এ পুরস্কারের জন্য মনোনীত করেছে। ২০০৫ সালে রোমে অনুষ্ঠিত নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ীদের এক শীর্ষ সম্মেলন থেকে এই পুরস্কার চালু করে কিডস রাইট ফাউন্ডেশন। শিশুদের অধিকার উন্নয়ন ও নিরাপত্তায় অসাধারণ অবদানের জন্য প্রতি বছর এই পুরস্কার দেওয়া হয়। ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সীরা ওই পুরস্কার পাওয়ার যোগ্য।

পুরস্কারটির মোট অর্থমূল্য এক লাখ ইউরো। এটিকে বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক শিশুদের পদক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। নাটোরের শেখ রিফাদের বিষয়ে কিডস রাইটসের ওয়েবসাইটে বলা হয়, রিফাদ একজন তরুণ চেঞ্জমেকার ও সমাজসংস্কারক। শিশুশ্রম বন্ধ এবং সুবিধাবঞ্চিত ও পথশিশুদের শিক্ষার সুযোগ করে দেওয়া, তাদের জন্য বিনামূল্যে শিক্ষা উপকরণ, নতুন জামাকাপড় বিতরণ করে সে। সে স্বাস্থ্যসহ শিশুদের অধিকারের বিষয়ে সচেতনতাও বাড়ায়।

রিফাদের বাবা নাটোর শহরের কানাইখালী এলাকার বাসিন্দা অধ্যক্ষ শেখ রকিবুল ইসলাম বলেন, 'আমার ছেলে এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হওয়ায় আমরা আনন্দিত। রিফাদ ছোট থেকেই বিভিন্ন সামাজিক কাজের সঙ্গে যুক্ত। সে শিশুদের শিক্ষা ও অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করছে। করোনার শুরুতে নাটোর জেলাজুড়ে ভাইরাসটি নিয়ে সচেতনতামূলক প্রচার চালিয়েছে।'

১৩ নভেম্বর নেদারল্যান্ডসে পুরস্কারটি ঘোষণা করার কথা আছে। মনোনীত হলেও রিফাদকে অপেক্ষা করতে হবে, কে হচ্ছে এই বছরের আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কার জয়ী, তা জানার জন্য। গত বছর এই পুরস্কার জিতেছিল বাংলাদেশি কিশোর সাদাত রহমান।