আগামী দুই বছরে কৃষিপণ্যের রপ্তানি দুই বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করতে খসড়া রোডম্যাপ প্রস্তুত করা হয়েছে। গত জুনে গঠিত কৃষি মন্ত্রণালয়ের কমিটি শাকসবজি, ফলমূল ও আলু রপ্তানির জন্য দুটি রোডম্যাপ প্রণয়ন করে। সোমবার রাজধানীর ফার্মগেটে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল (বিএআরসি) মিলনায়তনে ওই রোডম্যাপ উপস্থাপন করা হয়।

এ উপলক্ষে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বিভিন্ন ফসল ও খাদ্যে আমরা এখন উদ্বৃত্ত। এ ফসল সারা পৃথিবীতে রপ্তানি করতে চাই। সে জন্য রপ্তানির বাধাগুলো দূর করতে সরকার নিরলসভাবে কাজ করছে। এরই মধ্যে প্রস্তুতি প্রায় শেষ। গত এক বছরে কৃষিপণ্যের রপ্তানি অনেক গুণ বেড়েছে। সামনের দিনগুলোতে আরও বাড়বে বলে তিনি জানান।

আরও বক্তব্য দেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম, কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফ, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের চেয়ারম্যান ড. অমিতাভ সরকার ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. রুহুল আমিন তালুকদার।
শাকসবজি, ফলমূল ও প্রক্রিয়াজাত কৃষিপণ্য রপ্তানি বাড়াতে খসড়া রোডম্যাপ উপস্থাপন করেন কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের উপপরিচালক ড. মোহাম্মদ রাজু আহমেদ এবং আলু রপ্তানি বাড়ানোর লক্ষ্যে খসড়া রোডম্যাপ তুলে ধরেন বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের গবেষণা সেলের প্রধান সমন্বয়কারী ড. মো. রেজাউল করিম।