কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টানা তৃতীয় দিনের আন্দোলনে স্থবির হয়ে পড়েছে বিশ্ববিদ্যলয়ের প্রশাসনিক ও ২০২০-২১ সেশনের ভর্তি কার্যক্রম। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা।

রোববার সকালে আন্দোলনের অংশ হিসেবে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের একাংশ রেজিস্ট্রার দপ্তর তালাবদ্ধ রেখে নিজেদের অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক বিভিন্ন কার্যক্রমে দেখা দিয়েছে স্থবিরতা। চলমান ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি প্রক্রিয়াও আটকে আছে রেজিস্ট্রার দপ্তরের অচলাবস্থার কারণে। এছাড়া উচ্চ শিক্ষার্থে দেশের বাইরে যাওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ছাত্র-শিক্ষকদের আবেদন প্রক্রিয়াতেও সমস্যা তৈরি হচ্ছে।  

রেজিস্ট্রার দপ্তরের তালা খোলার বিষয়ে জানতে চাইলে কর্মকর্তা-কর্মচারী সমিতির সভাপতি আবু তাহের বলেন, আমরা বিষয়টি নিয়ে মিটিংয়ে বসেছি। মিটিং শেষে আমাদের সিদ্ধান্ত জানাব।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, রেজিস্ট্রার দপ্তর বন্ধ থাকলে তো আমার পক্ষে ভর্তি কার্যক্রম সহ অন্যান্য কার্যক্রম পরিচালনা করা সম্ভব না।

ভর্তি কার্যক্রম ব্যাহত হওয়ার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অবস্থানের বিষয়ে জানতে চাইলে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির বলেন, যেহেতু আমাদের আজকের মধ্যে তৃতীয় মেরিটের ফল প্রকাশের কথা তাই আমরা রেজিস্ট্রার দপ্তর খুলে দেওয়ার কথা বলেছি। কিন্তু তারা বারবার আলোচনার কথা বলেও এখনো কোনো সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি। তাই উপাচার্য মহোদয়ের নির্দেশে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি তারা যদি আজকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দপ্তর খুলে না দেয় তাহলে প্রক্টোরিয়াল টিমের মাধ্যমে আমরা রেজিস্ট্রার দপ্তর খুলে ভর্তি কার্যক্রম ও অন্যান্য কার্যক্রম সচল করবো।