ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

অন্য দেশের কাছে মাস্ক চাইছে চীন

অন্য দেশের কাছে মাস্ক চাইছে চীন

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ০০:৫৬ | আপডেট: ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ০১:১৩

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের আক্রমণ থেকে বাঁচতে মেডিকেল মাস্ক ব্যবহারের ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে; এবার এই মাস্ক সংকটে পড়তে হয়েছে চীনকে।

এমন সংকট থেকে উত্তরণের জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কাছে চীন মাস্ক সরবরাহ করতে আহ্বান জানিয়েছে বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বলেন, এই মুহূর্তে চীনে সুরক্ষার জন্য জরুরি ভিত্তিতে মেডিকেল মাস্ক প্রয়োজন। 

কর্তৃপক্ষ বলছে, দেশজুড়ে কী পরিমাণ মানুষের মধ্যে এই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে তা আমরা নিশ্চিত নই। তবে হুবেই প্রদেশের অবস্থা দেখে ব্যাপারটা কিছুটা আঁচ করা যাচ্ছে। প্রদেশটিতে এই সংখ্যা পাঁচ লাখ ছড়িয়েছে। 

চীনে দিনে একজন ব্যক্তিকে চারবার মাস্ক পরিবর্তনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে; সে হিসেবে দেশটিতে প্রতিদিন ২০ লাখ মাস্ক প্রয়োজন। হুবেই প্রদেশের উহানের একটি হাসপাতালে মাস্ক পরার এমন নির্দেশ মানা হচ্ছে।

গণপরিবহনে কর্মরত প্রায় পাঁচ লক্ষ কর্মীকে মাস্ক ব্যবহার করতে বলা হয়েছে, একই সঙ্গে দোকান, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও অন্যান্য স্থানেও জনসাধারণকে মাস্ক ব্যবহার করে প্রবেশ করতে বলা হয়েছে।

বিবিসি বলছে, নিজেদের সুরক্ষা কিংবা অসুস্থ অবস্থায় মাস্ক ব্যবহার করার রীতি রয়েছে চীনে। এ কারণেই দেশটিতে ঠিক কী পরিমাণ মাস্ক প্রয়োজন তা নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না; তবে এর প্রয়োজনীয়তা যে বাড়ছে তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।

এই মুহূর্তে চীনে যে পরিমাণ মাস্ক উৎপাদন হচ্ছে তা যথেষ্ট নয়; এ কারণেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কাছে গুণগত মাস্ক সরবরাহের আহ্বান জানিয়েছে দেশটি।

গত ২৪ জানুয়ারি থেকে ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দক্ষিণ কোরিয়া থেকে দুইশ' ২০ লাখ মাস্ক আমদানি করেছে চীন। আর ফেব্রুয়ারির শুরুতে বাইরে থেকে আনা চিকিৎসা সামগ্রীর ওপর শুল্ক প্রত্যহার করে দেশটি।

গত বছরের ডিসেম্বরে প্রথমবারের মতো উহানে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর চীনসহ প্রায় ২৫টির বেশি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস। এতে এখন পর্যন্ত ৫৬৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা এবং প্রাণহানি বাড়তে থাকায় এরই মধ্যে জরুরি অবস্থা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

আরও পড়ুন

×