ঢাকা বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

অত্যাধুনিক জঙ্গিবিমান রাখতে ইরানে ভূগর্ভস্থ ঘাঁটি

অত্যাধুনিক জঙ্গিবিমান রাখতে ইরানে ভূগর্ভস্থ ঘাঁটি

ইরানের ভূগর্ভস্থ বিমানঘাঁটি

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ০৫:১৩ | আপডেট: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ০৫:১৩

ইরানের ভূগর্ভস্থ একটি বিমানঘাঁটিতে রাশিয়ার তৈরি অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান রাখা হতে পারে। 'ঈগল ৪৪' নামে নতুন ওই বিমানঘাঁটির তথ্য সম্প্রতি জানান দিয়েছে দেশটি। গত ৭ ফেব্রুয়ারি এই নিয়ে একটি চটকদার ভিডিও প্রকাশ করেছে তেহরান। এরপরই এ নিয়ে চলছে বিশ্লেষণ।

ভিডিওতে দেখা যায়, ঘাঁটির দেয়ালে অত্যাধুনিক রুশ যুদ্ধবিমানের একটি পোস্টার। যে বিমান এখন ইরানের কাছে নেই। যদিও কোনো কোনো কর্মকর্তা দাবি করেছেন, রাশিয়া তাদের কাছে এই যুদ্ধবিমান বিক্রি করবে। এখন সেই প্রক্রিয়াই চলছে। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের।

স্যাটেলাইটের ছবি সামগ্রিকভাবে ইরানের পরিকল্পনা সম্পর্কে দুটি বিষয় ইঙ্গিত দেয়। কর্মকর্তারা এ বিমানগুলো সরবরাহের বিষয়ে আশাবাদী এবং তারা এই বিমানঘাঁটি ব্যবহার করতে চান।

২০২২ সালের সেপ্টেম্বর থেকেই ইরানের সামরিক ও রাজনৈতিক কর্মকর্তারা প্রকাশ্যে ২৪ এসইউ-৩৫এস কেনার কথা বলে আসছে। এটি রাশিয়ার অন্যতম উন্নত যুদ্ধবিমান।

এখন পর্যন্ত রাশিয়া ইরানের সঙ্গে চুক্তি সই করেনি। তবে ভিডিও এবং স্যাটেলাইট চিত্রগুলো পর্যালোচনা করলে বেরিয়ে আসে ইরান অন্তত বিমানগুলো রাখার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। চলতি বছরের শেষ নাগাদ এই বিমান সরবরাহ করা হবে বলে মনে করছেন কর্মকর্তারা। কয়েক দশকের মধ্যে এটি হবে ইরানের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যুদ্ধবিমান বহরের বড় অগ্রগতি।

আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ে রাশিয়া ও ইরানের মধ্যে সহযোগিতা ক্রমশই বাড়ছে। ইউক্রেনে হামলা শুরুর পর থেকে ইরানের কাছ থেকেও সহযোগিতা নিয়েছে মস্কো।

এদিকে, মস্কো ও তেহরানের এই ঘনিষ্ঠ সম্পর্ককে 'বিপজ্জনক' বলে অভিহিত করেছে মার্কিন প্রশাসন।

একই সঙ্গে জো বাইডেন প্রশাসন বিশ্বাস করে, ইরান ইতোমধ্যে নতুন বিমানের প্রশিক্ষণ নিয়েছে। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জন কিরবি ডিসেম্বরে সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, এ যুদ্ধবিমানগুলো ইরানের বিমানবাহিনীকে তার আঞ্চলিক প্রতিবেশীদের তুলনায় উল্লেখযোগ্যভাবে শক্তিশালী করবে।

আরও পড়ুন

×