আসামের এনআরসির জের

বাঙালি-অবাঙালি সংঘাতের আশঙ্কা আন্দামানে

প্রকাশ: ১১ অক্টোবর ২০১৮      

রক্তিম দাশ, কলকাতা

আসামের নাগরিক নিবন্ধন তালিকার (এনআরসি) বিরূপ প্রভাব পড়েছে ভারতের আন্দামান-নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে। বসবাসের বিতর্কিত বৈধতাপত্র 'ইনারলাইন পারমিট' নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে বাঙালিরা। এ নিয়ে স্থানীয় অবাঙালিদের সঙ্গে বাঙালিদের সংঘাতের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। হঠাৎ মাথাচাড়া দিয়েছে বাঙালিবিদ্বেষ।

আন্দামান-নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের প্রশাসনিক ব্যবস্থাকে সঠিকভাবে চালানোর লক্ষ্যে ২০০০ সালে গঠিত হয়েছিল শেখর সিং কমিশন। এই কমিশনের মূল লক্ষ্য ছিল আন্দামানে বসবাসরত অধিবাসীদের অধিকার সুরক্ষিত করা। কমিশনের প্রস্তাব ছিল— ১৯৭৮ সালের পর আন্দামানে আসা বাসিন্দাদের বহিষ্কার করা হবে। এ ছাড়া এখানে বসবাস করতে গেলে ছয় মাসের ইনারলাইন পারমিট নিতে হবে। অবাঙালিদের দাবি— ইনারলাইন পারমিট দিয়ে বাঙালিদের আলাদা করা হোক।

আন্দামানে বসবাসকারী বাঙালিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আসামের এনআরসির জেরে ফের ইনারলাইন পারমিট ব্যবস্থার দাবি তুলেছে অবাঙালিরা। তাদের বক্তব্য— এই ইনারলাইন পারমিটের আড়ালে রয়েছে বাঙালিদের দ্বীপ থেকে পাকাপাকিভাবে উৎখাত করার চক্রান্ত।

ইনারলাইন পারমিটের দাবিতে গত মাসে স্থানীয়দের সংগঠন লোকাল বর্ন অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃত্বে আন্দামানজুড়ে হরতাল ডাকা হয়। বাঙালিদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় নবগঠিত সংগঠন 'বাংলা জয়েন্ট অ্যাকশন ফোরাম'-এর অন্যতম নেতা ডা. রামকান্ত হালদার বলেন, হরতালের সময় পোর্টব্লেয়ার শহরে বাঙালিদের দোকানপাট জোরপূর্বক বন্ধ করে দিয়ে তাদের মারপিট করা হয়। নানাভাবে বাঙালিদের হেনস্থা করা হয়। একজন সংসদ সদস্য হরতালের বিরোধিতা করায় তার কুশপুতুল পোড়ায় তারা।

বাঙালি ফোরাম গত ৭ অক্টোবর পোর্টব্লেয়ারে সমাবেশের ডাক দেয়। প্রবল বৃষ্টি উপেক্ষা করে প্রায় ৬ হাজার বাঙালি মিছিল করে তেরঙা পার্কে গণসমাবেশ করেন। সেখানে শেখর সিং কমিশনের ইনারলাইন পারমিটের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন তারা।

বাঙালি নেতা বিমল রাজবংশী বলেন, এখানকার জনসংখ্যার ৭০ শতাংশ বাঙালি হলেও প্রশাসনে কাজ করছেন মাত্র ২ শতাংশ। বাঙালিরা পূর্ববাংলা থেকে শরণার্থী হয়ে ভারত সরকারের নির্দেশে এখানে বসবাস করছেন। সরকারিভাবে তাদের পুনর্বাসন করা হয়েছে পোর্টব্লেয়ারসহ বিভিন্ন দ্বীপে। এখানকার বাঙালিদের বড় অংশই নিম্নবর্গের হিন্দু ও তফশিলি সম্প্রদায়ভুক্ত, যাদের কাস্ট সার্টিফিকেট দেওয়া হচ্ছে না। বাংলা মাধ্যম স্কুুলগুলো তুলে দেওয়া হয়েছে। ধীরে ধীরে দ্বীপকে বাঙালিশূন্য করার চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন

অনন্য ভূমিকায় ভারত

অনন্য ভূমিকায় ভারত

একাত্তরের ২৫ মার্চ মধ্যরাতে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় নিরস্ত্র বাঙালির ...

পাঁচ আসনে বশ মানেননি ৭ বিদ্রোহী

পাঁচ আসনে বশ মানেননি ৭ বিদ্রোহী

বিদ্রোহী হলেই আজীবন বহিস্কার- এমন কঠোর হুঁশিয়ারির পরও চট্টগ্রামে বশ ...

প্রার্থিতা প্রত্যাহার করলেন যারা

প্রার্থিতা প্রত্যাহার করলেন যারা

ঢাকার বাইরে দেশের সাত বিভাগ- চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, বরিশাল, রংপুর, ...

বোনের পক্ষে ভোট চাইলেন সোহেল তাজ

বোনের পক্ষে ভোট চাইলেন সোহেল তাজ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজীপুর-৪ (কাপাসিয়া) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ...

ড. কামালের কর ফাঁকি খতিয়ে দেখা হচ্ছে: এনবিআর চেয়ারম্যান

ড. কামালের কর ফাঁকি খতিয়ে দেখা হচ্ছে: এনবিআর চেয়ারম্যান

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন ...

বিএনপি, ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলের প্রার্থী যারা

বিএনপি, ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলের প্রার্থী যারা

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) চূড়ান্ত ...

আ'লীগ আবার ক্ষমতায় এলে বাড়িতে বাড়িতে কান্নার রোল উঠবে: রিজভী

আ'লীগ আবার ক্ষমতায় এলে বাড়িতে বাড়িতে কান্নার রোল উঠবে: রিজভী

আবারও আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রক্ষমতায় এলে ভিন্নমত ও বিশ্বাস চিরদিনের জন্য ...

টেকনোক্র্যাট ৪ মন্ত্রীকে অব্যাহতি

টেকনোক্র্যাট ৪ মন্ত্রীকে অব্যাহতি

চার টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীকে অব্যাহতি দেওয়া হলো। রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষরের পর মন্ত্রিপরিষদ ...