ব্রেক্সিটের সময় বাড়ল

প্রকাশ: ১৫ মার্চ ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া (ব্রেক্সিট) বিলম্বিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট।

ব্রেক্সিট নিয়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মের প্রস্তাব দুই দফায় প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পর বৃহস্পতিবার তৃতীয়টিতে সম্মতি দেন এমপিরা। ফলে ইইউ ত্যাগের জন্য খুব সম্ভবত আরও কিছুদিন সময় পাবে যুক্তরাজ্য।

ব্রেক্সিট বিলম্বিত করার প্রস্তাবের পক্ষে ভোট পড়ে ৪১২টি, বিপক্ষে ২০২টি। এখন ইইউর কাছে ব্রেক্সিটের জন্য আরও সময় চাইবেন তেরেসা। ইইউ এ আবেদনে সম্মত হলে পূর্বনির্ধারিত ২৯ মার্চ ব্রেক্সিট কার্যকর হচ্ছে না। ব্রিটেন তিন মাসের মতো সময় পেতে পারে। তবে এই প্রস্তাবও ব্রিটিশ পার্লামেন্টে পাস হতে হবে।

এর আগে অবশ্য ব্রিটেন ইইউ ছাড়বে কি না তা নিয়ে আরেক দফা গণভোটের দাবি উঠেছে। পার্লামেন্টে এ নিয়ে আলোচনায় সম্মতি জানিয়েছেন স্পিকার। তবে বিরোধী দল লেবার পার্টি বলেছে, তারা এ ধরনের উদ্যোগে সমর্থন দেবে না। তেরেসা অবশ্য চাচ্ছেন ব্রেক্সিট নিয়ে তার প্রস্তাবে সায় দিক সংসদ। এ জন্য শেষ চেষ্টা চালাবেন তেরেসা মে। তৃতীয় দফায় পার্লামেন্টে নিজের ব্রেক্সিট প্রস্তাব উত্থাপন করবেন তিনি। আগামী ২০ মার্চ কিংবা তার আগেই এ প্রস্তাব তুলতে পারেন তিনি। খবর বিবিসি ও এএফপির।

এর আগে গত জানুয়ারিতে তার প্রথম দফার চুক্তির খসড়া ও গত মঙ্গলবার দ্বিতীয় দফার সংশোধনী প্রস্তাব বাতিল হয়ে যায়। পরদিন বুধবার রাতে 'নো ডিল'খ্যাত চুক্তিহীন ব্রেক্সিট পরিকল্পনাও হাউস অব কমন্সের ভোটে বাতিল হয়।

আগামী ২৯ মার্চ ইইউ থেকে যুক্তরাজ্যের আনুষ্ঠানিক ব্রেক্সিট ঘটার কথা। কীভাবে সেই বিচ্ছেদ ঘটবে তা নিয়ে ব্রিটিশ এমপিরা সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে না পারায় পুরো ব্রিটেনকে ঘিরে ধরেছে গভীর অনিশ্চয়তা।

২০১৬ সালের ২৩ জুন যুক্তরাজ্যে এক গণভোটে ইইউর সঙ্গে দেশটির চার দশকের সম্পর্কচ্ছেদের রায় হয়। ভোটে হারের পর রক্ষণশীল দলের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন পদত্যাগ করলে তেরেসা সেই দায়িত্ব নিয়ে ব্রেক্সিটের প্রক্রিয়া শুরু করেন।

রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক এ জোট থেকে কোন প্রক্রিয়ায় যুক্তরাজ্য আলাদা হবে এবং এরপর ইইউভুক্ত বাকি ২৭টি রাষ্ট্রের সঙ্গে যুক্তরাজ্যের সম্পর্ক কেমন হবে, সেই পথ বের করার জন্য সময় নেওয়া হয় ২১ মাস। আগামী ২৯ মার্চ সেই সময়সীমা উত্তীর্ণ হবে। দুই বছরে ইইউর সঙ্গে দীর্ঘ দর কষাকষির মাধ্যমে ব্রেক্সিট চুক্তির একটি খসড়া তৈরি করেছিলেন তেরেসা।

বিষয় : ব্রেক্সিট ইউরোপ তেরেসা মে

সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি
তারিখ সেহরি ইফতার
২১ মে '১৯ ৩:৪৪ ৬:৪০
২২ মে '১৯ ৩:৪৩ ৬:৪১
*ঢাকা ও আশেপাশের এলাকার জন্য প্রযোজ্য
সূত্র: ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ