বন্ধুকে বাঁচাতে কুমিরের সঙ্গে লড়াই স্কুলছাত্রীর!

প্রকাশ: ৩০ অক্টোবর ২০১৯     আপডেট: ৩০ অক্টোবর ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

বন্ধুদের সঙ্গে নদীতে সাঁতার কাঁটছিল স্কুলছাত্রী ৯ বছরের লাটোয়া মুওয়ানি। হঠাৎ পানির নিচে এক কুমির তার পা কামড়ে ধরে তাকে টেনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ দৃশ্য দেখে রেবেকা মানকোম্বই নামে আরেক স্কুলছাত্রী বন্ধুকে উদ্ধারে ঝাঁপিয়ে পড়ে কুমিরটির ওপর। আর অবিশ্বাস্যভাবে লাটোয়াকে কুমিরের কবল থেকে উদ্ধার করতেও সক্ষম হয় রেবেকা।

সম্প্রতি বিস্ময়কর এ ঘটনাটি ঘটেছে জিম্বাবুইয়ের হারারের সিনডারেলা গ্রামে।

স্থানীয়রা জানায়, গ্রামের শিশুরা পানিতে সাঁতার কাটার সময় একটি কুমির আক্রমণ চালায় লাটোয়ার ওপর। প্রকাণ্ড কুমিরটি তাকে টেনে নিয়ে যেতে থাকে গভীর পানির দিকে। এ সময় লাটোয়ার চিৎকার শুনে কুমিরের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে তার বন্ধু রেবেকা মানকোম্বই।  যতক্ষণ না লাটোয়াকে কুমিরটি ছেড়ে দেয় ততক্ষণ রেবেকা কুমিরটির চোখে আঘাত করতে থাকে। শেষ পর্যন্ত লাটোয়াকে ছেড়ে গভীর পানিতে যেতে বাধ্য হয় কুমিরটি। এরপর বন্ধুদের নিয়ে নিরাপদে তীরে উঠে আসে রেবেকা। 

রেবেকা বলে, ‘যারা সাঁতার কাটছিল তাদের মধ্যে আমিই সবার বড় ছিলাম। সুতরাং, আমি ওকে বাঁচানোর তাগিদ অনুভব করি।’

সে জানায়, কুমিরটা লাটোয়াকে ছেড়ে দেওয়ার পর পরই সবাই তীরে উঠে যায়। কুমিরটা এর পরে আর হামলা চালায়নি।

এ ঘটনায় রেবেকার কিছু না হলেও লাটোয়াকে চিকিৎসার জন্য স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, শিগগিরই লাটোয়া সুস্থ হয়ে উঠবে। 

এদিকে ছোট্ট মেয়ে রেবেকার এই অসাধারণ সাহসের কথা  এখন লোকের মুখে মুখে। সূত্র: এনডিটিভি