ঢাকা শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

কূটনৈতিক টানাপোড়েন

ভারতে জি-২০ সম্মেলনে আসছেন না চীনের প্রেসিডেন্ট

ভারতে জি-২০ সম্মেলনে আসছেন না চীনের প্রেসিডেন্ট

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং

সমকাল ডেস্ক

প্রকাশ: ৩১ আগস্ট ২০২৩ | ১৩:৪৫ | আপডেট: ৩১ আগস্ট ২০২৩ | ১৩:৪৭

সীমান্ত নিয়ে কূটনৈতিক উত্তেজনার মধ্যেই আগামী সপ্তাহে ভারতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে আসছেন না চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। এর আগে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনও একই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। দুটি বৃহৎ শক্তির প্রেসিডেন্ট না আসায় এ সম্মেলন নিয়ে ভারতের উচ্চাশা হোঁচট খেল। 

বৃহস্পতিবার চীন ও ভারতের বিশ্বস্ত দুটি সূত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জিনপিংয়ের সম্মেলনে যোগদান না করার তথ্য জানিয়েছে। 

চীনের এক কূটনীতিক জানান, আগামী ৯-১০ সেপ্টেম্বর ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে জি-২০ সম্মেলনে চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কিয়াং বেইজিংয়ের প্রতিনিধিত্ব করবেন। তবে এ ব্যাপারে ভারত ও চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে কোনো তথ্য জানানো হয়নি।

ভারতীয় সূত্র জানায়, চীনের পক্ষ থেকে আগেই তাদের এ সম্পর্কিত তথ্য দেওয়া হয়েছে। তবে কেন শি জিনপিং আসবেন না, সে সম্পর্কে কোনো তথ্য জানানো হয়নি। সাম্প্রতিক সময়ের সীমান্ত নিয়ে বিরোধের জেরে বেইজিং ও নয়াদিল্লির মধ্যে কূটনৈতিক টানাপোড়েন বেড়েছে। সর্বশেষ ভারতের অরুণাচল প্রদেশকে চীন তার মানচিত্রে অন্তর্ভুক্ত করায় নয়াদিল্লি ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। 

এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সম্মেলনে যোগ দেওয়ার কথা নিশ্চিত করেছেন। জি-২০ সম্মেলনে দুই পরাশক্তি চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা ছিল।

এর আগে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানিয়েছেন, তাঁর পরিবর্তে জি২০ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ প্রতিনিধিত্ব করবেন।

সারাবিশ্বের নজর এখন জি-২০ সম্মেলনের ওপর। শেষ সময়ে এসে বিভিন্ন দেশের নেতাদের সম্মেলনে যোগ না দেওয়ার ঘোষণায় উদ্বেগ প্রকাশ করছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা।

চলতি সপ্তাহেই চীন নতুন একটি মানচিত্র প্রকাশ করেছে। সেখানে ভারতের অরুণাচল প্রদেশ ও দুই দেশের মধ্যে অবস্থিত বিতর্কিত অকসাই চীনকেও নিজেদের অংশ বলে দাবি করেছে বেইজিং। এরপরই জিনপিংয়ের ভারতে আসা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়। শেষ পর্যন্ত সে সংশয়ই সত্যি হলো। 

সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকায় ব্রিকস সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে বৈঠক হয় জিনপিংয়ের। তখন তারা সীমান্তে শান্তি বজায় রাখতে একমত হন। তবে তার কয়েক দিন পরই চীন নতুন মানচিত্র প্রকাশ করে। এ মানচিত্র প্রকাশের পর এর প্রতিবাদ জানিয়েছে ভারত।

২০২০ সালে হিমালয় সীমান্তে দুই দেশের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের পর ২০ জনের বেশি ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছিল। তার পর থেকেই বেইজিং-নয়াদিল্লি সম্পর্কে টানাপোড়েন চলছে। 


আরও পড়ুন

×