গত কয়েক দশকের মধ্যে দাবানলে অস্ট্রেলিয়া সবচেয়ে খারাপ সময় পার করছে। সেপ্টেম্বরে ছড়িয়ে পড়া দাবানলে দেশটির বিশাল অংশ বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

দাবানলে গত কয়েক মাসে দেশটিতে বেশ কয়েক জনের মৃত্যু হয়েছে। প্রায় সব প্রদেশেই এখন দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। তবে নিউ সাউথ ওয়েলসের অবস্থা বেশি খারাপ।কারণ দাবানলে শুধু এ প্রদেশেই বিধ্বস্ত হয়েছে ৯শ'র বেশি ঘরবাড়ি। নানাভাবে দেশটির দাবানল প্রতিরোধের চেষ্টা চলছে। কিন্তু ক্রমাগত পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে। 

দাবানলে পুড়ছে ঘর-বাড়ি, বনাঞ্চল

আগুনের প্রচণ্ড তাপে এরই মধ্যে নিউ সাউথ ওয়েলসের বিভিন্ন বনাঞ্চল ও নীল পর্বতমালার মতো জাতীয় উদ্যান পুড়ে গেছে। মেলবোর্ন এবং সিডনিসহ  কয়েকটি শহরও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে শহরতলির ঘরবাড়ি। গেল ডিসেম্বর শুরুর দিকে সিডনির পরিস্থিতি এতটাই খারাপ ছিল যে, সেখানে বাতাসের মান বিপদসীমার ১১ গুণ বেশি ছিল।

প্রতি বছর গরমের সময় অস্ট্রেলিয়ায় দাবানল দেখা দেয়। তবে শুকনো আবহাওয়ার কারণে দাবানল আরও ছড়িয়ে পড়ে। বেশিরভাগ সময় প্রাকৃতিক কারণ; বিশেষ করে খরায় ক্ষতিগ্রস্ত বনাঞ্চলে বজ্রপাতে দাবানল শুরু হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া ও ইন্দানেশিয়াতেও এরকম দাবানল হয়। তবে অস্ট্রেলিয়ার মতো এতটা ছড়িয়ে পড়েনা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রবল বাতাস আর তাপদাহের কারণে অষ্ট্রেলিয়ার দাবানল ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। সূত্র: সিএনএন