এবার দৌড়বিদ হওয়ার দৌড়ে সেই শ্রীনিবাস

প্রকাশ: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০     আপডেট: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের কর্নাটকে কাম্বালা উৎসবে নিজের পালিত মহিষের সঙ্গে দৌড়াচ্ছেন শ্রীনিবাস গৌড়া - সংগৃহীত

ভারতের কর্নাটকে কাম্বালা উৎসবে নিজের পালিত মহিষের সঙ্গে দৌড়াচ্ছেন শ্রীনিবাস গৌড়া - সংগৃহীত

কাম্বালা উৎসবে কাদামাখা জমিতে ১৩ দশমিক ৬২ সেকেন্ডে ১৪২ মিটারের বেশি অতিক্রম করেন কর্নাটকের শ্রীনিবাস গৌড়া। এতেই ভারতজুড়ে শুরু হয়ে যায় হইচই। সঙ্গে সঙ্গে জ্যামাইকার তারকা দৌড়বিদ উসাইন বোল্টের সঙ্গে ২৮ বছর বয়সী শ্রীনিবাসের গতির তুলনা শুরু হয়ে যায়। বৃহস্পতিবার কর্নাটকের কাম্বালা উৎসবে গৌড়া দুই মহিষ নিয়ে দৌড়ান। এবার দৌড়বিদ হওয়ার দৌড়ে নেমেছেন তিনি।

উসাইন বোল্ট মাত্র ৯ দশমিক ৫৮ সেকেন্ডে ১০০ মিটার দৌড়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন। হিসাব করে দেখা গেছে, শ্রীনিবাস ১০০ মিটার অতিক্রম করেছেন ৯ দশমিক ৫৫ সেকেন্ডে। বোল্টের চেয়ে দশমিক ০৩ সেকেন্ড সময় কম নিয়েছেন তিনি। এর পরেই শ্রীনিবাসকে নিয়ে চর্চা শুরু হয় নেট দুনিয়ায়।

এরই মধ্যে সাইয়ের সেরা কোচদের সামনে ট্রায়ালে শ্রীনিবাসকে ডাকা হয়েছে বলে জানালেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিজু। সোমবারই শ্রীনিবাস সাই কেন্দ্রে এসে পৌঁছবেন। দৌড়বিদ হওয়ার যোগ্যতা সেখানেই প্রমাণ হবে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের অনেকে তাকে এখনই ভারতের অলিম্পিক দলে যুক্ত করতে পরামর্শও দিয়েছেন।

এদিকে গতির ঝড় তুলে যিনি সব আলো শুষে নিয়েছেন সেই শ্রীনিবাস বলেন, 'মানুষ বোল্টের সঙ্গে আমাকে তুলনা করছেন। বোল্ট বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। আমি তো কেবল জলকাদার জমিতে দৌড়াই।'

নভেম্বর থেকে মার্চের মধ্যে হওয়া এ উৎসবে মহিষ নিয়ে এর মালিককে শস্যক্ষেতের মধ্য দিয়ে দৌড়াতে হয়। এ সময় পশুর ওপর অত্যাচার করা হয় অভিযোগ তুলে প্রাণী অধিকার সংরক্ষণে কাজ করা সংগঠনগুলো কাম্বালা বন্ধে আবেদন করলেও ২০১৬ সালে আদালত কর্নাটকের ঐতিহ্যবাহী এ উৎসবের ছাড়পত্র দেন।

শ্রীনিবাসের শারীরিক সক্ষমতার পরিচয় পেয়ে আনন্দ মাহিন্দ্রা টুইট করেন, এই লোকটার শরীর দেখলেই বোঝা যায় অ্যাথলেটিক্সে অসম্ভব সব রেকর্ড গড়তে পারেন। কিরেন রিজিজু ওকে ১০০ মিটার স্প্রিন্টের জন্য ট্রেনিং দিন, অথবা কাম্বালাকে অলিম্পিক ইভেন্টে যোগ করা হোক। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।