করোনা মোকাবিলায় ভারতের অন্যান্য রাজ্যের চেয়ে এক ধাপ এগিয়ে আছে পশ্চিমবঙ্গ। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে করোনামুক্ত করতে জোর কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। 

এরই ধারাবাহীকতায় কলকাতা মেডিকাল কলেজ ও হাসপাতালকে করোনা চিকিত্‌সা কেন্দ্রে রূপান্তরিত করার পর আরও এক নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করল রাজ্য প্রশাসন। 

সোমবার ঘোষণা করা হয়, পশ্চিমবঙ্গের ২২ টি জেলায় ২২টি 'ডেডিকেটেড' নভেল করোনা হাসপাতাল নির্মিত হবে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা অজয় চক্রবর্তী জানিয়েছেন, ‘সব জেলা থেকে তথ্য চেয়ে পাঠানো হয়েছে। কোন হাসপাতালে তারা করতে চান তাও জানাতে বলা হয়েছে।’

রাজ্যের প্রতিটি জেলার মানুষের কথা মাথায় রেখে নভেল করোনাভাইরাসের চিকিৎসার জন্য একটি করে ডেডিকেটেড হাসপাতাল তৈরি করা হবে বলে জানানো হল। সব জেলার প্রশাসন এবং জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের কাছে এই মর্মে নির্দেশও পাঠানো হয়ে গিয়েছে। সেখানকার কোন হাসপাতালকে 'করোনা হাসপাতালে' রূপান্তরিত করা যাবে, সে বিষয়ে দ্রুত পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট পাঠানোর নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। হাসপাতালগুলিতে কত সংখ্যক বেডের ব্যবস্থা করা সম্ভব, চিকিৎসার জন্যে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি এবং কত চিকিৎসক-নার্স কর্মী দরকার, এ সবই বিস্তারিত রিপোর্ট পাঠাতে হবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে।

উল্লেখ্য পশ্চিমবঙ্গে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২ জন। এছাড়া ১৯ জন আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।