মস্কোর বাসিন্দাদের ঘরে রাখতে বসানো হয়েছে ক্যামেরা

প্রকাশ: ০৪ এপ্রিল ২০২০     আপডেট: ০৪ এপ্রিল ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে রাশিয়ার শহরগুলো লকডাউন করা হয়েছে। হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাসিন্দাদের গতিবিধির ওপর নজর রাখতে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করছে মস্কো।  

এই সময় মস্কোর বাসিন্দারা যাতে ঘর থেকে বের হতে না পারেন তার জন্য বসানো হয়েছে ১০ হাজার ফেস ট্র্যাক ক্যামেরা। খবর বিবিসির

দেশটির নগর কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, মানুষের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করতে মস্কো শহরে ১০ হাজার ক্যামেরা বসানো হয়েছে। এসব ক্যামেরায় ফেসিয়াল রিকগনিশন সফ্টওয়্যার ইনস্টল করা হয়েছে। যা লোকজনের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সংযোগ করা থাকবে। 

যারা কোয়ারেন্টাইন ভঙ্গ করে বাইরে বের হবে, সঙ্গে সঙ্গেই পুলিশের কাছে তাদের তথ্য চলে যাবে। 

রাশিয়ার আইন  যে বিদেশ থেকে সফর করে ফিরেছে বা যারা সংক্রামিত ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছে তাদের অবশ্যই ১৪ দিনের জন্য হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার জন্য আইন পাস করেছে রাশিয়া।  তাদের বাড়িতে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে। এই আইন অমান্য করলে পাঁচ বছরের কারাদণ্ডেরও বিধান রাখা হয়েছে।

মস্কোর মেয়র সের্গেই সোবায়ানিন ফেব্রুয়ারিতে একটি ব্লগ পোস্টে লিখেছিলেন, যারা হোম কোয়ারেন্টাইন মানছেন না আমরা তাদের ওপর নজর রাখছি। স্বয়ংক্রিয়ভাবে তারা ক্যামেরায় ধরা পড়ছেন।

শুক্রবার পর্যন্ত রাশিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ১৪৯ জন। মারা গেছেন ৩৪ জন।