বুধবার থেকে মালয়েশিয়ায় শুরু পুরোদমে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড

প্রকাশ: ০৮ জুন ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

বুধবার থেকে মালয়েশিয়ায় প্রায় সবধরনের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড ফের চালু হচ্ছে। প্রায় তিন মাস আগে আরোপিত করোনাভাইরাস নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে দেশটি মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতি পুনরুদ্ধার করতে চলেছে। এই কারণে আন্তঃরাজ্য ভ্রমণের অনুমতিও দেয়া হবে। খবর রয়টার্সের।

রোববার দেশটির প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন এক টেলিভিশন ভাষণে ঘোষণা করেছেন, করোনাভাইরাস ‘সাফল্যের সঙ্গে’ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে এবং মালয়েশিয়া ৩১ আগস্ট পর্যন্ত নতুন পুনরুদ্ধার পর্ব শুরু করবে। স্বাস্থ্যকর নির্দেশাবলি যথাযথভাবে মেনে সরকার পর্যায়ক্রমে সামাজিক, শিক্ষা ও ধর্মীয় কর্মকাণ্ডের ওপর বিধিনিষেধ কমিয়ে দেবে এবং ব্যবসা-বাণিজ্য স্বাভাবিক সময়ে ফিরতে দেয়া হবে। রাজ্যগুলোর মধ্যে ভ্রমণের অনুমতি দেয়া হবে। তবে আন্তর্জাতিক সীমান্ত বন্ধ থাকবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

থিম পার্ক এবং নাইট ক্লাবের মতো বিনোদন কেন্দ্র, স্পোর্টস যাতে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগের প্রয়োজন হয় এবং বিশাল সমাবেশের সাথে জড়িত ইভেন্টগুলোও বন্ধ থাকবে। ১৮ মার্চ সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও স্কুল বন্ধ করে জনসমাগম এবং ভ্রমণ নিষিদ্ধ করার পর মালয়েশিয়া সামাজিক দূরত্বের প্রোটোকল দিয়ে ধীরে ধীরে বিগত মাসে ব্যবসা পুনরায় চালু করেছিল। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমণে শীর্ষে থাকা দেশটিতে সংক্রমণের গতি সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে ধীর হয়ে গেছে। সোমবার পর্যন্ত দেশটিতে মারা গেছে ১১৭ জন এবং সংক্রমিত হয়েছে ৮ হাজার ৩২২ জন।

এর আগে শনিবার দেশটির অর্থমন্ত্রী বলেন, মালয়েশিয়ার আর্থিক ঘাটতি এ বছর বাৎসরিক অর্থনৈতিক আয়ের প্রায় দ্বিগুণ হয়ে যাবে। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি মহামারীর প্রভাব হ্রাসে ২৯৫ বিলিয়ন রিঙ্গিট (৯ বিলিয়ন ডলার) প্রণোদনা ঘোষণা করে। সরকার সরাসরি অর্থনীতির মধ্যে ৪৫ বিলিয়ন রিঙ্গিট সংযুক্তির প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।