রাশিয়ায় নগ্ন হয়ে রেস্তোরাঁ খোলার দাবি শেফদের

প্রকাশ: ১২ জুন ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রেস্তোরাঁ মালিক ও শেফদের পোস্ট করা ছবি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রেস্তোরাঁ মালিক ও শেফদের পোস্ট করা ছবি

করোনার তাণ্ডবে থমকে গেছে সারা পৃথিবী। মানুষ গৃহবন্দি, অফিস আদালতে তালা, বন্ধ হয়ে আছে হোটেল-রেস্তোরাঁর দরজা। উপার্জন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দিশেহারা শ্রমজীবী সাধারণ মানুষরা। কী করবে বুঝতে পারছে না কেউ।

কিন্তু জীবিকার তাগিদে মরিয়া মানুষ কী করতে পারে, তার একটি নমুনা দেখা গেল রাশিয়ায়। প্রায় পাঁচ লাখ আক্রান্তের এই দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত ৫ লাখ ছাড়িয়েছে।

উপার্জন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় নিজেদের নগ্ন ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করে ব্যবসা চালুর দাবি জানিয়েছেন রেস্তোরাঁ মালিক ও শেফরা।

শত শত বার, রেস্টুরেন্ট ও ক্যাফেতে কর্মরত ব্যক্তিরা নগ্ন হয়ে শরীরের সামনে প্লেট, কাপ, সসপেন, বোতল, বারে বসার টুল এবং ন্যাপকিন ধরে রেখে ছবি পোস্ট করেছেন।

সরকার যেহেতু করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে জারি করা নিষেধাজ্ঞা ধীরে ধীরে প্রত্যাহার করতে শুরু করেছে। তাই তারা তাদের ব্যবসা চালু করার অনুমতি দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

কাজান শহরের রিল্যাব ফ্যামিলি বার চেইনের মালিক আর্থার গালায়চিউক বলেন, ‘আমরা নগ্ন কারণ আমাদের আর কিছুই বাকি নেই’। প্রতিবাদে আর্থার গালায়চিউকের ২০ জন কর্মী অংশ নেন।

দুই মাসেরও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর কাজানের রেস্তোরাঁগুলোর উন্মুক্ত অংশ ১১ জুন থেকে খোলার অনুমতি দেওয়া হবে।

শুধু মাস্ক পরে এবং বাসন ধরে রেখে সহকর্মীদের সাথে তোলা একটি গ্রুপ ছবি আপলোড করে সাইবেরিয়ার শহর নভোসিবিরস্কের একজন শেফ পাভেল লিখেছেন, ‘আমরা স্ট্রিপ শো করতে বা মানুষকে বোকা বানাতে চাই না। আমরা শুধু কাজ করতে চাই।’

তিনি আরো বলেন, ‘সুপারমার্কেট, শপিংমল, সেলুন বা গণপরিবহনের চেয়ে আমাদের ক্ষেত্রে ঝুঁকি বেশি নয়’।

মার্চের শেষ দিকে খাবারের দোকান এবং ফার্মেসি বাদে সবকিছু বন্ধ করে কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। বিভিন্ন অঞ্চল নিজেদের পরিস্থিতি অনুযায়ী লকডাউনের মাত্রা আরোপ করে।

মস্কোতে লকডাউন প্রত্যাহার প্রক্রিয়া চলছে এবং শপিংমল, বইয়ের দোকান এবং পার্লারসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান আবার চালু হয়েছে।

রাশিয়ার রাজধানীতে ২৩ জুলাই থেকে পুরোদমে চালু করার আগে জুনের শেষ দিক থেকে ক্যাফে এবং রেস্টুরেন্টের খোলা অংশ চালু করার অনুমতি দেওয়ার পরিকল্পনা চলছে। রাশিয়ার অন্যান্য অংশে ইনডোর রেস্টুরেন্ট এবং বার বন্ধ থাকবে।