ইরান বানাল সোলাইমানি ক্ষেপণাস্ত্র

প্রকাশ: ২০ আগস্ট ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

ইরানের জাতীয় প্রতিরক্ষা শিল্প দিবস উদযাপিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার  সকালে দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দিবসটির উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী দিবসে নিজেদের নতুন নতুন সামরিক সরঞ্জাম প্রদর্শন করেছে দেশটি। 

নিজেদের তৈরি যেসব অস্ত্র প্রদর্শন করেছে, তার মধ্যে রয়েছে এক হাজার ৪০০ কিলোমিটার পাল্লার 'জেনারেল কাসেম সোলাইমানি' নামের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র  এবং এক হাজার কিলোমিটার পাল্লার 'আবু মাহদি আল মুহানদেস' নামের ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র। খবর পার্স টুডে’র।

নিজেদের তৈরি জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ও আবু মাহদি নামের দুটি ক্ষেপণাস্ত্রই সাগরে ভাসমান শত্রুর নৌযানসহ বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারবে বলে দাবি করেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। কাজটি করার সময় শত্রুর আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকেও ফাঁকি দেয়া সম্ভব হবে বলে জানিয়েছে তারা। এছাড়া জেট ফাইটারের নতুন ইঞ্জিনেরও উদ্বোধন করা হয়েছে।

ইরানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমির হাতামি বলেন, প্রতিরক্ষা খাতে আমাদের অগ্রগতি অনেক। অতীতের তুলনায় এটা ধারণার চেয়েও বেশি। ইসলামি বিপ্লবের চার দশকে ইরান নিরবচ্ছিন্নভাবে এই খাতে কাজ করে গেছে।

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর কুদস ফোর্সের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ও পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিটের উপপ্রধান আবু মাহদি আল মুহানদেস চলতি বছরের জানুয়ারিতে ইরাকের বাগদাদ বিমানবন্দরে যুক্তরাষ্ট্রের হামলায় নিহত হন। ক্ষেপণাস্ত্র দুটির নামকরণ করা হয়েছে তাদের নামেই।