পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে মার্বেল খনি ধসে কমপক্ষে ১৯ শ্রমিক নিহত হয়েছেন। নিখোঁজ রয়েছেন আরও অনেকে। সোমবার সন্ধ্যায় খয়বর পাখতুনখাওয়া রাজ্যে মোহমান্দ জেলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার উদ্ধারকারীরা ধ্বংসস্তূপ থেকে আরও ছয়জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে। এছাড়া উদ্ধারকৃতদের মধ্যে দু'জনের মৃত্যু হয়েছে। খবর ডনের

এর আগে এক বিবৃতিতে প্রাদেশিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের (পিডিএমএ) মহাপরিচালক ধ্বংসস্তূপ থেকে ৯ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধারের খবর জানান।

উদ্ধারকারী সংস্থার এক মুখপাত্র বিলাল ফয়জি জানান, আহতদের বেশিরভাগের অবস্থা গুরুতর ছিল। তিনি আরও জানান, তাদের মধ্যে দু'জন মোহাম্মদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। ফয়জি বলেন, কমপক্ষে ৫ জন এখনও ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়ে আছেন।

পিডিএএমএর মহাপরিচালক জানিয়েছেন, ধ্বংস্তূপের নিচে আটকা পড়াদের উদ্ধারে অভিযান চলছে। এজন্য পেশোয়ার থেকে পাঁচটি অ্যাম্বুলেন্স এবং একটি উদ্ধার গাড়ি দুঘর্টনাকবলিত স্থানে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও জানান, জেলা প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট বিভাগ একত্রিত হয়ে উদ্ধার অভিযান কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে।

মোহম্মদ জেলার পুলিশ প্রধান তারিক হাবিব জানিয়েছেন, সোমবার সন্ধ্যায় দুর্ঘটনার সময় ঘটনাস্থলে কমপক্ষে ৪০ থেকে ৫০ জন শ্রমিক ছিলেন।

তিনি আরও জানান, সাধারণত এই মার্বেল খনিগুলিতে বিপুল সংখ্যক শ্রমিক কাজ করে। তবে সৌভাগ্যক্রমে ওই সময় বেশিরভাগই কাজ শেষ করে বাড়ি ফিরে গেছিলেন।

জেলা প্রশাসনের এক কর্মকর্তা স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানিয়েছেন, ওই মার্বেল খনির কমপক্ষে ২৫ জন শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছেন।

উদ্ধারকারী কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পেশোয়ার ও চারসাদ্দা থেকে অতিরিক্ত কর্মী এনে খনি ধসে নিখোঁজদের সন্ধানে তল্লাশি অব্যাহত রয়েছে।