যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজার ও জার্মান কোম্পানি বায়োএনটেকের তৈরি করোনা টিকা অক্টোবরের মাঝামাঝিতে বাজারে আসতে পারে। মঙ্গলবার সিএনএনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বায়োএনটেকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহ-প্রতিষ্ঠাতা উগুর সাহিন এ তথ্য জানিয়েছেন। 

বায়োএনটেকের প্রধান নির্বাহী উগুর সাহিন বলেন, করোনার বিরুদ্ধে এই টিকাটি এখন পর্যন্ত সফল। আশা করছি শিগগিরই এই টিকার কার্যকারিতার বিষয়ে জানা যাবে। অক্টোবরের মাঝামাঝি বা নভেম্বরে এটি ব্যবহারে জন্য অনুমতি পাওয়া যেতে পারে। খবর সিএনএনের 

এই ভ্যাকসিন তরুণ ও বয়স্কদের শরীরে করোনার বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত শক্তিশালী অ্যান্টিবডি তৈরি করেছে বলে দাবি করেছেন সাহিন। সামান্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিলেও তা এক থেকে দু'দিনের মধ্যে চলে যায় বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ফাইজার ও বায়োএনটেক এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এই বছরের শেষে ১০০ মিলিয়ন মানুষকে টিকা সরবরাহের পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। ২০২১ সালের মধ্যে ১ দশমিক ৩ মিলিয়ন মানুষকে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা করছেন তারা।   

করোনার টিকার ১০০ মিলিয়ন ডোজের জন্য গত জুলাইয়ে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য বিভাগ ফাইজারের সঙ্গে ১ দশমিক ৯৫ ডলারের চুক্তি করেছিল। এই চুক্তিটি পরে যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে আরও ৫০০ মিলিয়ন ডোজ গ্রহণের অনুমতি দিয়েছিল। 

বিষয় : ফাইজার করোনা টিকা

মন্তব্য করুন