মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেন্টাকির লুইভিন শহরে পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ তরুণী ব্রিয়ানা টেইলর নিহতের প্রতিবাদে বিক্ষোভ থেকে করা গুলিতে দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

ওই তরুণীকে হত্যায় কাউকে অভিযুক্ত না করার সিদ্ধান্তের পরই স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটে বলে বিবিসি জানিয়েছে।

গত বছরের ১৩ মার্চ মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনার সময় নিজ ফ্ল্যাটে গুলিতে নিহত হন টেইলর। তার শরীরে পাঁচটি গুলির ক্ষত পাওয়া যায়।

লুইভিনের পুলিশ প্রধান রোবার্ট স্ক্রোডার জানান, দুই পুলিশ কর্মকর্তা গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাদের অবস্থা তেমন গুরুতর নয়। এ ঘটনায় সন্দেহজনক একজনকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় কেন্টাকি অঙ্গরাজ্য জুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন। মোতায়েন করা হয়েছে ন্যাশনাল গার্ডও।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলো বলছে, পুলিশ কর্মকর্তারা পরোয়ানা ছাড়াই অভিযান চালিয়ে হত্যা করেছিল ২৬ বছর বয়সী টেইলরকে। ঘটনার দিন যার খোঁজে পুলিশ ওই অ্যাপার্টমেন্ট অভিযান চালায় তিনি সেখানে ছিলেনই না। সেই অ্যাপার্টমেন্টেও কোনো মাদকও পাওয়া যায়নি। ঘটনার পর থেকেই বিক্ষোভ শুরু হয়।