হোটেল সম্পর্কে নেগেটিভ রিভিউ দিয়ে জেলে!

প্রকাশ: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০     আপডেট: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

থাইল্যান্ডে ঘুরতে গিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এক নাগরিক উঠেছিলেন এক হোটেলে। সেখানে অবকাশ যাপন শেষে তিনি হোটেলটি সম্পর্কে নেগেটিভ রিভিউ দেন। এর জেরে তার বিরুদ্ধে হোটেল কর্তৃপক্ষ মানহানির মামলা করে। মামলায় গ্রেপ্তারের পর তাকে জেলও খাটতে হয়েছে।

ওয়েসলি বার্নেস নামে যুক্তরাষ্ট্রের ওই নাগরিক থাইল্যান্ডে চাকরি করেন। ‘সী ভিউ’ নামে হোটেলটি সম্পর্কে বিভিন্ন প্ল্যাটফর্ম থেকে তিনি নেতিবাচক মন্তব্য করে পোস্ট দেন। 

হোটেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, তাদের সাবেক অতিথি ওয়েসলি বার্নেস হোটেল সম্পর্কে যেসব মন্তব্য করেছেন তা মিথ্যা। তার এসব পোস্টের জন্য হোটেলটির সুনাম ক্ষুণ্ন হয়েছে 

পুলিশ জানিয়েছে, বার্নেস ট্রিপ অ্যাডভাইজার ওয়েবসাইটে নেগেটিভ রিভিউ দিয়েছেন বলে হোটেলটির মালিক অভিযোগ করেন। খবর বিবিসির

এই বছরের শুরুর দিকে কোহ চ্যাং দ্বীপের ওই হোটেলে গিয়েছিলেন বার্নেস। হোটেলটির রেস্টুরেন্টে খাওয়ার সময় বার্নেস তার নিজের মদের বোতল নিয়ে আসতে চাইলে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তার বাকবিকণ্ডা হয়। 

হোটেলটির পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, বার্নেস হৈচৈ সৃষ্টি করেছিলেন এবং একটি কর্কেজের ফি দিতে তিনি অস্বীকার করেন। পরে হোটেল ম্যানেজারের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।  

এই ঘটনার পর বার্নেস হোটেলটি সম্পর্কে নেগেটিভ রিভিউ পোস্ট করেন। এরপরই হোটেল কর্তৃপক্ষ তার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করে।

বার্নেসকে পরে গ্রেপ্তার করে জেলে পাঠনো হয়। কিছুদিন পরে তিনি জামিনে মুক্ত হন। বার্নেস দোষী সাব্যস্ত হলে তার দুই বছরের কারাদণ্ড হতে পারে।

হোটেল কর্তৃপক্ষ বলেছে, আমরা বুঝতে পারছিলাম বার্নেস আরও নেগেটিভ রিভিউ পোস্ট করবেন। এর প্রতিকার হিসেবে আমরা তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করি। 

অভিযোগ দায়ের করার আগে বার্নেসের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়েছিল বলে জানিয়েছে তারা।