চীনের হুমকিতে ভয় পায় না কানাডা: জাস্টিন ট্রুডো

প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

জাস্টিন ট্রুডো

জাস্টিন ট্রুডো

বিক্ষুব্ধ হংকং থেকে পালিয়ে যাওয়া নেতা-কর্মীদের আশ্রয় দিয়েছে কানাডা। দেশটিতে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত কং পেইউ এ বিষয়ে কানাডার বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করার পর প্রেসিডেন্ট জাস্টিন ট্রুডো বলেছেন, হংকংয়ে চীনের মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে কানাডা নিজের অবস্থান পাল্টাবে না। তিনি বলেন, কানাডা চীনের হুমকিকে ভয় পায় না।

চীনে মানবাধিকার রক্ষায় কানাডার ভূমিকা অপরিবর্তিত থাকবে বলে জানিয়ে দিয়ে ট্রুডো বলেন, ‘আমরা বিশ্বজুড়ে মানুষের অধিকার রক্ষায় সব সময় উচ্চকিত। আমরা যে কোনো দেশেই মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে স্পষ্ট অবস্থান নেব। চীনে উইঘুরদের বিরুদ্ধে দেশটির সরকারি অবস্থান, হংকংয়ে চীনের ভূমিকা মানবাধিকার লঙ্ঘনের শামিল। আমরা তা সমর্থন করি না।’ খবর আল জাজিরার।

২০১৮ সালের ডিসেম্বরের পর থেকে কানাডা ও চীনের সম্পর্ক খারাপ যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের ওয়ারেন্টে সাড়া দিয়ে কানাডা চীনের টেলিকম জায়ান্ট হুয়াওয়ের প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা মেং ওয়াঞ্জহুকে গ্রেপ্তার করার পর থেকে এই তিক্ততার শুরু দুই দেশের মধ্যে।

বৃহস্পতিবার অটোয়ায় চীনের রাষ্ট্রদূত কং পেইউ কানাডায় হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থিদের আশ্রয় দেয়ার ব্যাপারে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ‘এটা ঠিক হবে না। এটা চীনের পছন্দ নয়। হংকংয়ে বসবাসকারী তিন লাখ কানাডিয়ানের জন্য এটা তাদের দেশের নিরাপদ ও স্বাস্থ্যকর অবস্থান নয়।’ জবাবে ট্রুডো কানাডা চীনের হুমকিতে বিচলিত হবে না বলে জানিয়ে দেন।

কানাডার দু'টি সংবাদপত্র দ্য গ্লোব ও মেইল সম্প্রতি হংকং ছেড়ে যাওয়া কয়েকজন গণতন্ত্রপন্থিকে কানাডা রাজনৈতিক আশ্রয় দিয়েছে বলে জানায়। কানাডার তরফ থেকে অবশ্য এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

চীনের রাষ্ট্রদূতের হুঁশিয়ারি উচ্চারণের পর ট্রুডোর আগে কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রাঁসোয়া ফিলিপ শঁপাই চীনা রাষ্ট্রদূতের বক্তব্যকে ‘পুরোপুরি অগ্রহণযোগ্য ও বিরক্তিকর’ বলে জানিয়ে দেন।