প্রতিটি দেশেরই পৃথক প্রক্রিয়ায় ব্যালট গণনা করার পদ্ধতি ও নিয়ম আছে। যুক্তরাষ্ট্রও এর ব্যতিক্রম নয়। তবে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এবারের নির্বাচন কিছুটা ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে। কারণ করোনা মহামারির কারণে এ বছর নির্বাচনের প্রথম দিকে স্বাভাবিকের চেয়ে পোস্টাল বা মেইলে অনেকে ভোট দিয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে,  ২০১৬ সালের নির্বাচনের তুলনায় এবার দ্বিগুণ পোস্টাল ভোট পড়েছে। অন্যদিকে লাখ লাখ মানুষ আবার নির্বাচনের দিনও ভোট দিতে জড়ো হচ্ছেন ভোট কেন্দ্রে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে কখন ব্যালট গ্রহণ শেষ হবে ও গণণা শুরু হবে তা নিয়ে গোটা বিশ্ব অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে। তবে পোস্টাল বা মেইলে ভোট দেওয়ার সময়সীমা একেক অঙ্গরাজ্যে একেকরকম হওয়ার কারণে পুরো ফল পেতে আরও কয়েকদিন সময় লাগবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ভোট গণনা এবং প্রতিবেদন প্রকাশ করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিটি অঙ্গরাজ্যেরই আলাদা প্রক্রিয়া রয়েছে। সিএনএনের প্রতিবেদনে উঠে এসেছে যুক্তরাষ্ট্রের নয়টি অঙ্গরাজ্যের ভোট গ্রহণ শেষ ও গণনার সময়।

ফ্লোরিডা :  এই অঙ্গরাজ্যে নির্বাচন পূর্ব ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে ২৪ সেপ্টেম্বর। নভেম্বরের ৩ তারিখ অর্থাৎ নির্বাচনের দিন ভোট গণনা শুরু হবে। মেইলের মাধ্যমে এই অঙ্গরাজ্যে ৩ নভেম্বর পর্যন্ত ভোট দেওয়া যাবে। ভোটগ্রহণ শেষ হবে এদিন রাত ৮ টায়। প্রথমে নির্বাচন পূর্ব ভোট গণনা করা হবে। নির্বাচনের রাতেই ভোট গণনা শেষ হবে।

জর্জিয়া : এখানে নির্বাচন পূর্ব ভোট গ্রহণ শুরু হয় অক্টোবরের ১৯ তারিখে। নির্বাচনের দিন সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত এখানে ভোট গ্রহণ চলবে। সব মেইল ব্যালটের গণনাও হবে ওই দিনে।মেইলের মাধ্যমে এখানে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ভোট দেওয়া যাবে।

টেক্সাস : এই অঙ্গরাজ্যের বড় বড় প্রদেশে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে ২২ অক্টোবর। মেইল ভোট গণনা শুরু হয়েছে ৩০ অক্টোবর থেকে। এখানে মেইল ব্যালট পৌঁছানোর শেষ দিন ৪ নভেম্বর। অন্যদিকে ছোট ছোট প্রদেশে ৩০ অক্টোবর থেকে মেইল ভোট গ্রহণ শুরু হয়। এগুলো গণনা শুরু হবে ৩ নভেম্বর। ব্যক্তিগতভাবে দেওয়া ভোট গণনা করা হবে ওইদিনই।

নর্থ ক্যারোলিনা :  নর্থ ক্যারোলিনায় নির্বাচন পূর্ব ভোটের প্রক্রিয়া শুরু হয় ২৯ সেপ্টেম্বর। গণনা শুরু হবে নির্বাচনের দিনই। ভোটগ্রহণ বন্ধ হবে একই দিন সন্ধ্যা ৭টায়। এখানে মেইল ব্যালট পৌঁছানোর শেষ দিন ১২ নভেম্বর।

পেনেসেলভেনিয়া : এখানে মেল ব্যালট এসে পৌঁছানোর শেষ দিন ৬ নভেম্বর। নির্বাচনের দিন এই অঙ্গরাজ্যে ভোটগ্রহণ বন্ধ হবে রাত ৮টায়। এখানকার অনেক প্রদেশেই নির্বাচনের দিন মেইল ব্যালট গণনা করা হয় না। কোনও কোনও অঙ্গরাজ্যে আবার গণনা করা হয়।

ওহিহো : এই অঙ্গরাজ্যে নির্বাচন পূর্ব ভোটের প্রক্রিয়া শুরু হয় ৬ অক্টোবর। ভোট গণনা শুরু হবে ৩ নভেম্বর। এদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে। এখানকার অনেক প্রদেশে নির্বাচন পূর্ব গ্রহণ করা ভোট আগেই প্রকাশ করা হবে। আর নির্বাচনের দিন ওই দিন দেওয়া ভোটের গণনা করা হয়। এ রাজ্যে ৩ নভেম্বর রাত বা পরদিনের মধ্যে ভোট গণনা শেষ হবে।
 
অ্যারিজোনা : এই অঙ্গরাজ্যে নির্বাচন পূর্ব ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে অক্টোবরের ২০ তারিখে। এই রাজ্যে ৩ নভেম্বর রাত ৯ টায় ভোট গ্রহণ শেষ হবে। এই রাজ্যে প্রথমে নির্বাচন পূর্ব ভোটের ফল প্রকাশ করা হবে। পাশাপাশি ভোট গ্রহণ বন্ধ হওয়ার এক ঘন্টা পর ওইদিনের ভোট গণনা শুরু হবে। নির্বাচনের রাতের পর অ্যারিজোনাতে সাধারণত প্রচুর পরিমাণে ব্যালট গোনা বাকী থাকে। এই অঙ্গরাজ্যে মেইলে ভোট দেওয়ার শেষ দিন ৩ নভেম্বর।

উইসকনসিন : এই অঙ্গরাজ্যে ভোট গণনা শুরু হবে ৩ নভেম্বর। এদিন রাত ৯ টা পর্যন্ত এখানকার ভোট কেন্দ্র খোলা থাকবে। ৪ নভেম্বরের মধ্যে এখানে সব ধরনের ভোট গণনা শেষ হবে। ৩ নভেম্বর পর্যন্তই এখানে মেইল ভোট দেওয়া যাবে।

মিশিগান : এই অঙ্গরাজ্যের কিছু বড় প্রদেশে ২ নভেম্বর থেকে ভোটের কার্যক্রম শুরু হবে। বাকী রাজ্যে ৩ নভেম্বরে ভোট হবে। ভোট গণনা শুরু হবে নির্বাচনের দিনই। এদিন রাত ৯ টা পর্যন্ত ভোট কেন্দ্র খোলা থাকবে। ৬ নভেম্বরের মধ্যে এই রাজ্যে ভোট গণনা শেষ হবে। এখানে মেইল ব্যালট পৌঁছানোর শেষ দিন ৩ নভেম্বর।