একজনের মিথ্যাচারে লকডাউনে ১৭ লাখ মানুষ

প্রকাশ: ২১ নভেম্বর ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক পিৎজা কর্মীর মিথ্যাচারে সম্প্রতি লকডাউনে যেতে হয়েছে ১৭ লাখ মানুষকে । ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ায়।

দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার মূখ্যমন্ত্রী স্টিভেন মার্শাল সাংবাদিক সম্মেলন করে ওই প্রদেশের ১৭ লাখ মানুষকে ছয়দিনের জন্য লকডাউনে থাকার নির্দেশ দেন।

দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ান পুলিশ কমিশনার গ্রান্ট স্টিভেনস জানিয়েছেন, পিৎজা শপের ওই কর্মচারী জানিয়েছিলেন, তিনি ওই পিৎজা শপে একজন ক্রেতা হিসেবে গিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি যে ওখানকার একজন কর্মচারী সেটি তিনি আড়াল করেন। ওই শপে তিনি নিয়মিত শিফটে কাজ করতেন।

এপ্রিলের পর প্রথমবারের মতো স্থানীয়ভাবে কয়েকজন ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হওয়ায় বুধবার দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়া লকডাউন করেছিল। এর মধ্যে পিৎজা বারটি করোনার 'হটস্পট' হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

মার্শাল বলেছেন, পিৎজা বারের সাথে সম্পৃক্তরা ইচ্ছাকৃতভাবে করোনা শনাক্তকরণ দলকে বিভ্রান্ত করেছে।

জানা গেছে, শনিবার মধ্যরাত পর্যন্ত, ওই প্রদেশে সব ধরনের হোম অর্ডার বাতিল করা হবে। এরপর দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ানদের বাইরে বের হওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে। তবে আগের নিষেধাজ্ঞাগুলি মেনে চলতে হবে।

মূখ্যমন্ত্রী এবং পুলিশ কমিশনার জানিয়েছে, মিথ্যা বলার জন্য কোনও আইন না থাকায় ওই পিৎজা কর্মীকে কোনো সাজা বা জরিমানা করা হবে না।  

মার্শাল জানিয়েছেন,যারা পিৎজা বারের ওই কর্মচারীর সংস্পর্শে এসেছেন তাদেরকে শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে এরই মধ্যে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার স্কুল, পাব, কফি শপ এবং বাইরের খেলাধূলা বন্ধ করা হয়েছে। শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় সব পরিষেবা যেমন- সুপারমার্কেট, চিকিৎসা সুবিধা এবং গণ পরিবহণ ব্যবস্থা খোলা রয়েছে। সূত্র : সিএনএন