সিঙ্গাপুরে সন্ত্রাসবাদ-সম্পর্কিত কার্যকলাপে জড়িত থাকার অভিযোগে নভেম্বরের শুরুর দিকে ২৬ বছর বয়সী এক বাংলাদেশি নির্মাণ শ্রমিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা আইনের আওতায় গ্রেপ্তার ওই বাংলাদেশি ২০১৭ সালে সিঙ্গাপুর গিয়েছিলেন।

মঙ্গলবার দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় (এমএইচএ) জানিয়েছে, আহমেদ ফয়সাল নামে এক বাংলাদেশিকে গত ২ নভেম্বর গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বিভাগের প্রাথমিক তদন্তে দেখা গেছে, তাকে ধর্মীয় চরমপন্থায় উদ্বুদ্ধ করা হয়েছিল এবং ধর্মের সমর্থনে সশস্ত্র সহিংসতা চালানোর ইচ্ছে ছিল তার। খবর স্ট্রেইট টাইমসের

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফয়সাল বাংলাদেশের পূর্বাঞ্চলের। তিনি গ্রামের একটি মাদ্রাসায় মাধ্যমিক সমমানের লেখাপড়া করেছিলেন।

এমএইচএ একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে তিনি বাংলাদেশ ছেড়ে সিঙ্গাপুরে যান। সেখানে একটি বিল্ডিং প্রোডাকশন কোম্পানিতে কাজ শুরু করেন। এরমধ্যে ২০১৮ সালে তিনি ধর্মীয় চরমপন্থায় যাওয়া শুরু করেন। ইরাক ও সিরিয়ায় জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের অনলাইন প্রচারণায় প্ররোচিত হয়ে তিনি উগ্রপন্থী যাত্রা শুরু করেন।

এর আগে ইউরোপে সাম্প্রতিক সহিংসতার প্রেক্ষাপটে সিঙ্গাপুরে সন্দেহভাজন ৩৭ জনের ওপর তদন্ত চালানো হয়। এতে দেখা যায়, ফয়সাল বাংলাদেশে হিন্দুদের ওপর হামলা এবং কাশ্মীরে গিয়ে লড়াই করার পরিকল্পনা করছিলেন।

এ ব্যাপারে মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে সিঙ্গাপুরের স্বরাষ্ট্র ও আইনমন্ত্রী কে শানমুগাম বলেন, ফয়সাল বাংলাদেশে অস্ত্র নিয়ে হিন্দু পুলিশ কর্মকর্তাদের ওপর হামলা করতে চেয়েছিলেন।