বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে গণপরিবহনে কথা না বলার পরামর্শ দিয়েছেন ফ্রান্সের চিকিৎসকরা। ফ্রেঞ্চ একাডেমি অব ডক্টরস শুক্রবার এ ব্যাপারে নির্দেশিকা জারি করেছে।

এতে বলা হয়, সাবওয়ে, বাস বা অন্যান্য গণপরিবহন- যেখানে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা সম্ভব হয় না, সেসব স্থানে কথা বলা বা ফোন কল করা এড়িয়ে চলা উচিত। গত মে মাস থেকে মাস্ক ব্যবহারের কথা বলা হলেও ভ্রমণকারীরা প্রায়শই ফোনে কথা বলার সময় মাস্ক আলগা করেন বা সরিয়ে ফেলেন।

সেই সঙ্গে ফ্রান্সে তৃতীয় দফা লকডাউনসহ আরও কঠোর পদক্ষেপের ওরপর জোর দিচ্ছেন দেশটির স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের

প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ দেশটিতে দ্বিতীয় দফা লকডাউনের কার্যকর করলেও ফ্রান্সের হাসপাতালগুলোতে এখন অক্টোবরের তুলনায় আরও বেশি কোভিড-১৯ রোগী রয়েছে। এ ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীরা দেশের অর্ধেকেরও বেশি নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) দখল করে রেখেছে।

চলতি মাসে ফ্রান্সে সংক্রমণের পরিমাণ ধীরে ধীরে বাড়ছে। দেশটিতে প্রতিদিন প্রায় ২০ হাজারেরও বেশি রোগী শনাক্ত হচ্ছে। বর্তমানে ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সময় ধরে (সন্ধ্যা ৬টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত) কারফিউ অব্যাহত রয়েছে দেশটিতে। গত অক্টোবর থেকে রেস্তোঁরা এবং পর্যটন এলাকাগুলো বন্ধ রয়েছে।

দেশটির সরকার এখনও পর্যন্ত নতুন করে সম্পূর্ণ লকডাউন এড়িয়ে চলার চেষ্টা করে যাচ্ছে। কারফিউ তুলে নিতে শনিবার ফ্রান্সে বিক্ষোভ দেখা গেছে। এখন পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় সাড়ে ৭২ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছে।