বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তদন্তকারীরা করোনাভাইরাসের উৎপত্তির সঙ্গে চীনের উহানের সামুদ্রিক প্রাণীর বাজারের গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্ক খুঁজে পেয়েছেন। 

সংস্থার ওই মিশনে সহায়তাকারী প্রাণী বিশেষজ্ঞ পিটার দাশাক বলেন, ১০ ফেব্রুয়ারি তদন্তের ফল প্রকাশের আগে প্রাথমিকভাবে এটুকু বলা যাবে যে, গত বছরের ডিসেম্বরে উহানের সামুদ্রিক প্রাণীর বাজার থেকেই এ প্রাণঘাতী ভাইরাসের উৎপত্তি ঘটেছে। ১৪ সদস্যের তদন্ত দলটি চীনের বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কাজ করে এ তথ্য পেয়েছেন। খবর এনডিটিভির

সার্স-কোভিড-২ ভাইরাস, যার নিকটতম জিন এক হাজার মাইল দূর থেকে আসা বাদুড়ের শরীর থেকে এসেছিল সেটি কিভাবে উহানে এসে ভয়াবহ আকারে ছড়ালো তা জানতে চেয়েছিলেন তদন্তকারীরা।

পিটার দাশাক বলেন, এই তদন্ত মহামারি প্রশমনে টার্নিং পয়েন্ট হিসেবে কাজ করতে পারে। যা ঘটেছে, তার মূলে কী আছে, তা এখন পরিষ্কার জানা যাচ্ছে। ফলে আগামীতে আমরা কীভাবে পদক্ষেপ নেব, তা বোঝাও সহজ হচ্ছে।

 উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে বিশ্বে ১০ কোটির বেশি আক্রান্ত এবং ২৩ লাখের বেশি মানুষ মারা গেছে।

গত বছরের মে মাসে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থাকে ভাইরাসের জেনেটিক উৎস চিহ্নিত করতে এবং মানুষের শরীরে তা কীভাবে সংক্রমিত হয়, তা জানতে বলা হয়েছিল।

বাদুড় থেকে মানুষের শরীরে এই ভাইরাস কীভাবে এলো তা সুস্পষ্টভাবে জানতে না পারায় দাশাকসহ অনেক প্রাণী বিজ্ঞানীই বলেছিলেন, ভাইরাসটি উহানের ল্যাবরেটরিতে উৎপন্ন এবং অসাবধানতার কারণে এটি পরীক্ষাগার থেকে বাইরে ছড়িয়ে পড়েছে।

তদন্তকারীরা উহানের ল্যাবরেটরি পরিদর্শন করেন এবং সেখানকার প্রাণিবিজ্ঞানী শি ঝেঙলির কাছে এ সম্পর্কে জানতে চান। শি ঝেঙলি এক দশকেরও বেশি সময় ধরে ভাইরাসগুলোর সংগ্রাহক ও বিশ্লেষক।

তদন্ত কাজটিতে চীনা বিশেষজ্ঞরা এবং সরকার সহায়তা করেছেন বলেও জানান পিটার দাশাক।