মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানে আটক অং সান সু চির দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) প্রধান কার্যালয়ে অভিযান চালিয়েছে সেনাবাহিনী।

মঙ্গলবার গভীর রাতে সেনাবাহিনী জোর করে এনএলডির প্রধান কার্যালয়ে প্রবেশ করে এবং ভাংচুর চালায়। খবর বিবিসির

তবে অভিযানের সময় এনএলডির নেতা বা কর্মীরা কার্যালয়ে ছিলেন না। 

সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের মধ্যেই এই অভিযান চালালো সেনাবাহিনী। বিক্ষোভকারীরা কয়েক দিন ধরে সু চি ও তার দলের নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবি জানাচ্ছিলেন।

মিয়নামারের সামরিক জান্তা দেশটিতে একসাথে পাঁচজনের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। তবে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মঙ্গলবারও বিক্ষোভ করেছেন কয়েক হাজার মানুষ। 

মঙ্গলবার দেশটির রাজধানী নেপিদোর বিক্ষোভে ফাঁকা গুলি, রাবার বুলেট ও জলকামান ব্যবহার করেছে পুলিশ। একাধিক স্থানে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে আহত ও রক্তাক্ত বিক্ষোভকারীদের ছবি-ভিডিও দেখা গেছে। আটক করা হয়েছে অনেককে। 

তবে কারফিউ-মার্শাল লর মতো কঠোর নিষেধাজ্ঞা ও ভয়ভীতি উপেক্ষা করে জান্তা সরকারের পতনের দাবিতে ঘর থেকে রাজপথে নেমে এসেছে মানুষ। কোথাও কোথাও পুলিশ সদস্যরাও বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে যোগ দিয়েছে। বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুন থেকে নেপিদো, এমনকি গ্রাম পর্যন্ত সেনাবিরোধী স্লোগান ধ্বনিত-প্রতিধ্বনিত হচ্ছে।