পাকিস্তানে অজ্ঞাত পরিচয় হামলাকারীদের গুলিতে চার নারী উন্নয়নকর্মী নিহত হয়েছেন। দেশটির উত্তর ওয়াজিরিস্তানে উন্নয়নকর্মীদের বহনকারী একটি গাড়িতে হামলা চালিয়ে তাদের হত্যা করা হয়। 

সিনিয়র পুলিশ কর্মকর্তা শফিউল্লাহ জানান, সোমবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৯টায় মীর আলী শহর থেকে কয়েক কিলোমিটার পূবে ইপ্পি গ্রামের কাছে এ  ঘটনা ঘটে। গাড়িতে গুলি চালিয়ে হামলাকারীরা তৎক্ষণাৎ স্থান ত্যাগ করে। গাড়ির চালককে আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এক সময় তালেবানের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত উত্তর ওয়াজিরিস্তানে এটাই সহিংসতার সর্বশেষ ঘটনা। খবর আল জাজিরার

 এটা কোনো সন্ত্রসী হামলা কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি জঙ্গিকবলিত জেলা, এখানে সবসময় হুমকি রয়েছে। তাছাড়া উপজাতীয় সংস্কৃতিতে নারীদের অবাধ গমনাগমন নিষিদ্ধ। তাই এমন ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

উত্তর ওয়াজিরিস্তান একসময় তেহরিক-ই-তালিবান পাকিস্তানের সদর দপ্তর ছিল। ২০০৭ সালে পাকিস্তান সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার লক্ষ্যে গঠিত  হয় এটি। তাদের প্রভাবাধীন অঞ্চলে নারীদের চলাচলের স্বাধীনতা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রিত ছিল। বেসরকারি সংস্থাগুলোর বেশিরভাগের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডই নিষিদ্ধ করা হয়েছিল এখানে।

২০১৪ সালে একাধিক সামরিক অভিযানের পরে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী পূর্ব আফগানিস্তানের গোষ্ঠীটির নেতৃত্ব নড়বড়ে এবং পাকিস্তানের মাটিতে এর অপারেশনাল ক্ষমতা হ্রাস করতে সফল হয়। সেই থেকে সহিংসতা উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পেয়েছিল। তবে টিটিপির  বিক্ষিপ্ত হামলাগুলো বেসামরিক ও সুরক্ষা বাহিনীকে একইভাবে লক্ষ্যবস্তু করে চলেছে।