ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে না শিবসেনা। তারা বরং তৃণমূল নেত্রী ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই সমর্থন দেবে। বৃহস্পতিবার মহারাষ্ট্রভিত্তিক দলটির জ্যেষ্ঠ নেতা ও রাজ্যসভার সদস্য সঞ্জয় রাউত এ ঘোষণা দেন। আগামী ২৭ মার্চ আট দফার এ নির্বাচন শুরু হবে। ফল ঘোষণা করা হবে ২ মে। শিবসেনাসহ এ নির্বাচনে বিজেপিকে ঠেকাতে মমতাকে সমর্থন দেয়ার কথা বলেছে আরো কয়েকটি দল। খবর এনডিটিভির।

বিজেপি ও শিবসেনার মধ্যে দীর্ঘদিনের মিত্রতা ভেঙে যায় ২০১৯ সালে। মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন করতে গিয়ে কংগ্রেস ও এনসিপি’র সহায়তা নেয়ায় বিজেপির সঙ্গে সম্পর্কে গুরুতর ফাটল ধরে। এই কারণে বিজেপি সরকার গঠনের দ্বারপ্রান্তে গিয়েও শেষ পর্যন্ত পিছু হটে আসে। শিবসেনার সমর্থন পেলে মহারাষ্ট্র শাসক দল বিজেপির হস্তচ্যুত হতো না। ফলে বিজেপির বিরাগভাজন হয় হিন্দু জাতীয়তাভিত্তিক দলটি। এদিকে পশ্চিমবঙ্গে এনসিপি তৃণমূলের সঙ্গেও মিত্রতার সম্পর্ক রেখেছে। এক বিবৃতিতে সঞ্জয় রাউত বলেন, আমরা চাই মমতা দিদি বিপুল ভোটে জিতুন। 

এদিকে তৃণমূল ক্ষমতায় থাকলেও পশ্চিম বঙ্গে নিজেদের ভাল সম্ভাবনা দেখতে পাচ্ছে বিজেপি। অবশ্য এরই মধ্যে নানারকম সহিংসতা ও পারস্পরিক কুৎসা রটানোয় লিপ্ত হয়েছে দ্বন্দ্বমান দলগুলো। দলবদলের খেলাও চলছে।

ক্ষমতাসীন তৃণমূল আট পর্বের ভোটগ্রহণকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরজেডি নেতা লালু যাদবকে কারাবন্দি করার কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘তারা বিহোরে প্রতারণা করে জিতেছে। তেজশ্বী লড়াই করছেন, আমি লড়াই করছি। দেখুন, তারা কীভাবে তফসিল তৈরি করেছে?’

সম্প্রতি লালু যাদবের ছেলে তেজশ্বী যাদব তৃণমূলের সঙ্গে সম্ভাব্য সমঝোতার বিষয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেন। শিবসেনার মতো পার্টির বিহারের মিত্র কংগ্রেসও পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূলের বিরোধী এবং বাম এবং অন্যান্য ছোট দলগুলোর সঙ্গে জোটে আসন্ন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।

সোমবার বৈঠকের পর বিহারের বিরোধী নেতা সাংবাদিকদের বলেন, বাম ও কংগ্রেসের সঙ্গে আমাদের জোট কেবল বিহারে রয়েছে। মমতার হাত এখানে শক্তিশালী করা এবং বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করা আমাদের দায়িত্ব। 

কংগ্রেসের আরেক মিত্র উত্তরপ্রদেশভিত্তিক সমাজবাদী পার্টি ঘোষণা করেছে, এবার তৃণমূলের পক্ষে প্রচার চালাবে। এসপির অখিলেশ যাদব পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির বিভ্রান্তিমূলক প্রচারণার মোকাবেলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সমর্থন করার কারণ হিসাবে উল্লেখ করেছেন।