পাখির মতো সূচালো ঠোঁট নয়। পছন্দ করে গাছের শুকনো, ভাঙা ডালে বসতে। দিনের আলোতে হঠাৎ করে দেখলে যে কেউ চমকে উঠবে। অন্ধকারে এর ডাক গায়ে শিহরণ জাগায়। মধ্য ও দক্ষিণ আমেরিকার পোটো নামের অদ্ভুত এই পাখির দেখা মিলত ইউরোপেও। কিন্তু এক যুগেরও বেশি সময় ধরে এরা কোথাও কারও নজরে আসেনি। 

অদ্ভুত চোখ, হিংস্র মুখ এবং ভয়ংকর দর্শন ও ডাকের জন্য অনেকে একে ঘোস্ট বার্ড বা ভূতুড়ে পাখি বলে। রাতে কীট-পতঙ্গ শিকার, দিনের বেলায় কোনো গাছের ডালের একেবারে মাথায় বসে সময় কাটায় এরা।

পোটো পাখিরা বাসা বাঁধতে পারে না। গাছের ডালের কোনো কোঠরেই ডিম পাড়ে। সেই ডিম ফুটিয়ে বাচ্চা বার করার দায়িত্ব মূলত থাকে বাবাদের ওপর। সারাদিন বাবা ডিম পাহারা দেয়। রাত হলে মা ও বাবা দায়িত্ব ভাগ করে নেয়। এরা ভাগাভাগি করে শিকারও ধরে।

সম্প্রতি কলম্বিয়ার মাগদালেনা প্রদেশের চিবোলো শহরে আচমকাই এক নারীর নজরে পড়ে একটি পোটো। দিনের বেলায় একটি গাছের ডালের ওপর চুপ করে বসেছিল। দীর্ঘক্ষণ এভাবে বসে থাকায় প্রথমে এটিকে কাঠের গুড়ি মনে করেছিলেন তিনি। পরে একটু নড়ে ওঠায় ভয় পেয়ে যান। একটু কাছে যেতেই পাখিটি চোখ খুলে ডাকতে শুরু করে। সূত্র :দ্য সান।


বিষয় : ভূতুড়ে পাখি

মন্তব্য করুন