মিয়ানমারে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভকারী ও নিরাপত্তা বাহিনীর চলমান সহিংসতার মধ্যেই বিবিসির এক সাংবাদিককে আটক করা হয়েছে।

রাজধানী নেপিডোর একটি আদালত প্রাঙ্গণের বাইরে রিপোর্ট করছিলেন বিবিসি বার্মিজের সাংবাদিক অং থুরা। এসময় তাকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বিবিসি জানিয়েছে, শুক্রবার স্থানীয় সময় দুপুরের দিকে একটি সাধারণ ভ্যানে সাদা পোশাকের একদল লোক থুরাকে ধরে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। থুরার সঙ্গে মিয়ানমারের সংবাদ সংস্থা মিজ্জিমার সাংবাদিক থান হতিকে অং কেও ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সেনা-অভ্যুত্থানের পর ক্ষমতা দখলকারী জান্তা বাহিনী মিজ্জিমার লাইসেন্স বাতিল করে দিয়েছিল।

বিবিসি কর্তৃপক্ষ এখনও রিপোর্টার থুরা কোথায় আছেন বা তার সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করতে পারেনি। তারা বলেন, বিষয়টি নিয়ে তারা খুবই উদ্বিগ্ন এবং থুরাকে খুঁজে বের করতে তারা স্থানীয় প্রশাসনের কাছে সাহায্য চেয়েছেন।

শুক্রবার বিবিসির এক বিবৃতিতে বলা হয়, বিবিসি মিয়ানমারে থাকা নিজেদের সব কর্মীর নিরাপত্তার বিষয়টি খুবই গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করে এবং অং থুরাকে খুঁজে বের করতে সবকিছু করবে।

বিবিসি বলছে, আমরা স্থানীয় প্রশাসনে ফোন করে থুরাকে খুঁজে বের করতে এবং তার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সাহায্য চেয়েছি।

নেপিডোতে রিপোর্টিংয়ে অনেক বছরের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন থুরা বিবিসির একজন স্বীকৃত সাংবাদিক।

জানা গেছে, সেনা-অভ্যুত্থানের পর থেকে মিয়ানমারে এখন পর্যন্ত ৪০ জন সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ১৬ জন এখনও বন্দি আছেন। এছাড়া জান্তা বাহিনীর ক্ষমতা দখলের পর এখন পর্যন্ত দেশটির পাঁচটি সংবাদ সংস্থার লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে।