যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এয়ারফোর্স ওয়ানে ওঠার সময় সিঁড়িতে হোঁচট খেয়েছেন। প্রথম হোঁচটে নিজেকে খুব সুন্দরভাবে ধরে নিতে পারলেও শেষবার একরকম পড়েই যান তিনি।

অবশ্য খুব স্মার্টলি নিজেকে সামলে নিয়েছেন জো বাইডেন। কারও সাহায্য ছাড়াই প্লেনের দরজার সামনে পৌঁছে কর্মকর্তাদের বিদায়ী অভিবাদনও দেন ৭৮ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট। আটলান্টায় যাচ্ছিলেন তিনি। খবর আলজাজিরার

স্থানীয় সময় শুক্রবার ওয়াশিংটন ডিসি থেকে ১০ মাইল দূরে ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের অ্যান্ড্রু বেস এয়ারপোর্টে এ ঘটনা ঘটেছে। হোয়াইট হাউস বলছে, বাইডেন সুস্থ আছেন। তিনি কোনো আঘাত পাননি।

আটলান্টায় ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস তার জন্য অপেক্ষায় ছিলেন। আটলান্টায় এশীয় আমেরিকান নেতাদের সঙ্গে সভায় যোগ দিতে যাওয়ার পথে এ বিপত্তি ঘটে।

বাইডেনকে তার সহকারী প্লেনের সিঁড়ি পর্যন্ত এগিয়ে দেন। ভিডিওতে দেখা যায়, এয়ারফোর্স ওয়ানের সিঁড়ির মাঝপথে প্রেসিডেন্টের পা ফসকে যায়। তিনি হাত দিয়ে সিঁড়ির রেলিং ধরে ছিলেন। তাকে কয়েকবার হোঁচট খেতে দেখা গেছে। একটু পরেই বাইডেন নিজেকে সামলে নেন। প্লেনের দরজায় পৌঁছে ঘুরে দাঁড়িয়ে রীতি অনুযায়ী বিদায়ী অভিবাদন জানিয়ে ভেতরে ঢোকেন তিনি।

হোয়াইট হাউস বলছে, সিঁড়ি টপকাতে ভুলভাবে পা ফেলার কারণেই এমন হয়েছে। হোয়াইট হাউসের কমিউনিকেশন ডিরেক্টর কেইট বেডিংফিল্ড জানান, সে সময় দমকা বাতাস বইছিল। সেটা এমন ঘটনার কারণ।

মার্কিন প্রেসিডেন্টরা নিরাপত্তার জন্য এয়ারফোর্স ওয়ান প্লেনে করে দেশ-বিদেশ ভ্রমণ করেন। এয়ারফোর্স ওয়ানে ওঠার উঁচু সিঁড়ি টপকাতে গিয়ে আছাড় খাওয়ার ঘটনা এর আগেও ঘটেছে।

গতবছর এয়ারফোর্স-২ প্লেনে ওঠার সময় পড়ে গিয়েছিলেন তৎকালীন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। ২০১৫ সালে সে সময়ের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাও পড়ে যাচ্ছিলেন। পরে তিনি নিজেকে সামলে নেন।