কোনও গবেষণাগার নয় সম্ভবত প্রাণী থেকে মানবদেহে করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে বলে মনে করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

করোনার উৎস তদন্ত করা ডব্লিউএইচওর যৌথ আন্তর্জাতিক দল একটি খসড়া রিপোর্টে এতথ্য দিয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যম সিএনএন।

স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, সম্ভবত প্রাণী থেকে এসেছে এই ভাইরাস। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে যখন করোনার অস্তিত্ব শনাক্ত হয়; তার দু’এক মাস আগে থেকেই সম্ভবত এটি ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। গবেষণাগার থেকে ভাইরাস ছড়ানোর সম্ভাবনাও খুব কম।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার করোনার উৎস নিয়ে তদন্ত সংক্রান্ত পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট প্রকাশ করবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এর আগেই রিপোর্টের খসড়া সংস্করণ হাতে পেয়েছে সিএনএন। পাওয়া তথ্যে ২০১৯ সালের শেষ দিকের আগে ভাইরাসটি ছড়িয়েছে বলে ইঙ্গিত নেই।

স্বাস্থ্য সংস্তার প্রতিবেদনে ভাইরাসের সম্ভাব্য চারটি উৎসের কথা বলা হয়েছে। এর মধ্যে বাদুড় থেকে অন্য কোনো প্রাণী হয়ে ভাইরাসটি মানবদেহে প্রবেশ করেছিল- এমন তথ্যের সবচেয়ে বেশি সম্ভাবনার কথা বলা হয়েছে।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, বাদুর থেকে মানুষের শরীরে আসার আগে ভাইরাসটি অন্য কোন প্রাণীর শরীরে অবস্থান করেছে  তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সার্স-সিওভি-২ এর সম্ভাব্য অন্তর্বর্তীকালীন বাহক প্রাণীটি এখনও অধরা।