ভারতের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের জ্যেষ্ঠ নেতা প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর স্বামী ব্যবসায়ী রবার্ট ভদ্রা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এরপর স্বামী-স্ত্রী দুজনই দিল্লিতে নিজেদের বাড়িতে আইসোলেশনে চলে গেছেন।

সংবাদমাধ্যমের খবর, বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে যখন জোরেসোরে প্রচারণা চলছে, সেই মুহূর্তে নির্বাচনী প্রচারণা বাতিল করলেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। শুক্রবার টুইটারে ভিডিও বার্তায় এ সিদ্ধান্তের কথাও জানিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা নিজেই।

এনডিটিভি জানিয়েছে, রবার্ট নিজেই তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে করোনাভাইরাস পজিটিভ হওয়ার খবর দিয়েছেন। বলেছেন, আক্রান্ত হলেও তার শরীরে রোগের কোনো উপসর্গ নেই। পোস্টে তিনি আরও লেখেন, কভিড দিকনির্দেশনা অনুযায়ী আমি এবং প্রিয়াঙ্কা বর্তমানে আইসোলেশনে আছি। যদিও প্রিয়াঙ্কার পরীক্ষার ফলাফল ‘নেগিটিভ’ এসেছে।

প্রিয়াঙ্কা টুইটারে নিজের পোস্টে লিখেছেন, আমি নিজেও করোনা টেস্ট করিয়েছিলাম। তবে রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। এরপরও চিকিৎসকরা আমাকে বাইরের সব ধরনের মেলামেশা থেকে দূরে থাকতে পরামর্শ দিয়েছেন।

শুক্রবার আসাম, শনিবার তামিলনাড়ু ও রোববার কেরালায় নিজের নির্ধারিত নির্বাচনী প্রচারণা সভা বাতিল করে প্রিয়াঙ্কা সমর্থকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা চেয়েছেন।

আসামে দুই দফা প্রচার করে এলেও শুক্রবার তৃতীয় তথা শেষ দফার ভোটে প্রচারের জন্য যাওয়ার কথা ছিল তার। আগামী ৬ এপ্রিল ওই রাজ্যে শেষ দফার ভোটের সঙ্গেই দক্ষিণ ভারতের দুই রাজ্যে এক দফায় ভোটপর্ব শেষ হবে।

তবে কংগ্রেসের একটি সূত্র জানিয়েছে, সশরীরে ওই তিন রাজ্যে না গেলেও ভার্চুয়াল সভা করতে পারেন কংগ্রেসের প্রিয়াঙ্কা। তবে অন্য রাজ্যে কংগ্রেস প্রার্থীদের জন্য রোড শো এবং জনসভা করলেও পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা ভোটে প্রচারের কোনো কর্মসূচি ছিল না তার।